প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ বসে বসে ভাবল অনেক ক্ষণ, ঘুঘু ডাকতে লাগল আমের ডালে । রঙিন স্থতো ঘরের থেকে এনে আরেক চরণ লিখে দিল— পরশ পাই নে তাই হৃদয়ের মাঝে’ । দুদিন গেল কেটে । শঙ্কর এল রঙরেজির ঘরে । শুধালে, পাগড়িতে কার হাতের লেখা ? জসীমের ভয় লাগল মনে । সেলাম করে বললে, “পণ্ডিতজি, অবুঝ আমার মেয়ে, মাপ করে ছেলেমাতুষি । চলে যাও রাজসভায়— সেখানে এ লেখা কেউ দেখবে না, কেউ বুঝবে না। শঙ্কর আমিনার দিকে চেয়ে বললে, ‘রংরেজিনী, অহংকারের-পাকে-ঘেরা ললাট থেকে নামিয়ে এনেছ শ্ৰীচরণের স্পর্শখানি হৃদয়তলে তোমার হাতের রাঙা রেখার পথে । রাজবাড়ির পথ আমার হারিয়ে গেল, আর পাব না খুজে । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৩৩৯ ১৬৮ So 6.