প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ স্মৃতিশিরোমণি 睡 রাজকুলের বৃদ্ধ পুরোহিত, বললে, 'ধিক মহারানী, ধিক্ । জাতিতে অস্ত্যজ রবিদাস, ফেরে পথে পথে, বাট দেয় ধুলো, তাকে তুমি প্রণাম করলে গুরু বলে— ব্রাহ্মণের হেঁট হল মাথ৷ এ রাজ্যে তোমার । রানী বললেন, ঠাকুর, শোনো তবে, আচারের হাজার গ্রন্থি দিনরাত্রি বাধ কেবল শক্ত করে— প্রেমের সোনা কখন পড়ল খসে জানতে পার নি তা । আমার ধুলোমাথা গুরু ধুলোর থেকে কুড়িয়ে পেয়েছে। অর্থহারা বাধনগুলোর গর্বে, ঠাকুর, থাকে৷ তুমি কঠিন হয়ে। আমি সোনার কাঙালিনী ধুলোর সে দান নিলেম মাথায় করে। [ মাঘ ১৩৩৯ ] স্নান সমাপন গুরু রামানন্দ স্তন্ধ দাড়িয়ে গঙ্গার জলে পূর্বমুখে । তখন জলে লেগেছে সোনার কাঠির ছোওয়া, ভোরের হাওয়ায় স্রোত উঠছে ছলছল করে