প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


X >8. রবীন্দ্র-রচনাবলী আজ র্চাদের উপরে একটা ঘোলা আবরণ, জ্যোৎস্না আজ ঝাপস – যেন মূছৰ্ণর ঘোর লাগল। বাতাস রুদ্ধ-- ধের্ণয়া জমে আছে আকাশে, গাছপালাগুলো যেন শঙ্কায় আড়ষ্ট । কুকুর অকারণে আর্তনাদ করছে, ঘোড়াগুলো কান খাড়া করে উঠছে ডেকে কোন অলক্ষ্যের দিকে তাকিয়ে । হঠাৎ গম্ভীর ভীষণ শব্দ শোনা গেল মাটির নীচে— পাতালে দানবেরা যেন রণদামামা বাজিয়ে দিলে— গুরু-গুরু গুরু-গুরু | মন্দিরে শঙ্খ ঘণ্টা বাজতে লাগল প্রবল শব্দে । হাতি বাধা ছিল, তার বন্ধন ছিড়ে গর্জন করতে করতে ছুটল চার দিকে যেন ঘূর্ণি-ঝড়ের মেঘ । তুফান উঠল মাটিতে— ছুটল উট মহিষ গরু ছাগল ভেড় উধ্ব শ্বাসে, পালে পালে । হাজার হাজার দিশহারা লোক আর্তম্বরে ছুটে বেড়ায়— চোখে তাদের ধাধা লাগে, আত্মপরের ভেদ হারিয়ে কে কাকে দেয় দ’লে । মাটি ফেটে ফেটে ওঠে ধোয়া, ওঠে গরম জল— ভীম-সরোবরের দিঘি বালির নীচে গেল শুষে । মন্দিরের চূড়ায় বাধা বড়ো ঘণ্টা দুলতে দুলতে বাজতে লাগল ঢং ঢং । আচমকা ধ্বনি থামল একটা ভেঙে-পড়ার শব্দে।