প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ما A S : রবীন্দ্র-রচনাবলী বাহিরের কাজ করে কিরাতের দল, মন্দিরের ভিতরে কাজ করে মাধব, তার দুই চক্ষু পাকে পাকে কালে কাপড়ে বাধা । দিনরাত সে মন্দিরের বাহিরে যায় না— ধ্যান করে, গান গায়, আর তার আঙল চলতে থাকে । মন্ত্রী এসে বলে, “ত্বর করে, ত্বরা করে – তিথির পরে তিথি যায়, কবে লগ্ন হবে উত্তীর্ণ।” মাধব জোড়হাতে বলে, “যার কাজ তারই নিজের আছে ত্বরা, অামি তে উপলক্ষ্য ।” অমাবস্যা পার হয়ে শুক্লপক্ষ এল আবার । অন্ধ মাধব আঙ লের স্পর্শ দিয়ে পাথরের সঙ্গে কথা কয়, পাথর তার সাড়া দিতে থাকে । কাছে দাড়িয়ে থাকে প্রহরী পাছে মাধব চোখের বাধন খোলে । পণ্ডিত এসে বললে, ‘একাদশীর রাত্রে প্রথম পূজার শুভক্ষণ । কাজ কি শেষ হবে তার পূর্বে। মাধব প্রণাম করে বললে, “আমি কে যে উত্তর দেব। কৃপা যখন হবে সংবাদ পাঠাব যথাসময়ে, তার আগে এলে ব্যাঘাত হবে, বিলম্ব ঘটবে।’ ষষ্ঠী গেল, সপ্তমী পেরোল— মন্দিরের দ্বার দিয়ে চাদের আলো এসে পড়ে মাধবের শুক্লকেশে । সূর্য অস্ত গেল। পাণ্ডুর আকাশে একাদশীর চাদ । মাধব দীর্ঘনিশ্বাস ফেলে বললে, “যাও প্রহরী, সংবাদ দিয়ে এসে গে মাধবের কাজ শেষ হল আজ । লগ্ন যেন বয়ে না যায় ।”