প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী "خ سالا বনমালী। কুমারটুলির নীলমাধব চৌধুরি-মশায়ের দুটি পরমান্বন্দরী কন্যা আছে— র্তাদের বিবাহযোগ্য বয়স হয়েছে— শ্ৰীশ । হয়েছে তো হয়েছে, আমাদের সঙ্গে তার সম্বন্ধটা কী । বনমালী। সম্বন্ধ তো আপনারা একটু মনোযোগ করলেই হতে পারে। সে আর শক্ত কী । আমি সমস্তই ঠিক করে দেব। - বিপিন। আপনার এত দয়া অপাত্রে অপব্যয় করছেন । বনমালী। অপাত্র । বিলক্ষণ ! আপনাদের মতো সৎপাত্র পাব কোথায় । আপনাদের বিনয়গুণে আরও মুগ্ধ হলেম । শ্ৰীশ । এই মুগ্ধভাব যদি রাখতে চান তা হলে এইবেল সরে পড়ুন। বিনয়গুণে অধিক টান সয় না । বনমালী। কন্যার বাপ যথেষ্ট টাকা দিতে রাজি আছেন । শ্ৰীশ । শহরে ভিক্ষুকের তো অভাব নেই। ওহে বিপিন, তোমার আমোদ বোধ হচ্ছে, কিন্তু এ-রকম সদালাপ আমার ভালো লাগে না । বিপিন। পালাই কোথায় । ভগবান একেও যে লম্বা একজোড়া পা দিয়েছেন । ঐশ । যদি পিছু ধরেন তা হলে ভগবানের সেই দান মানুষের হাতে প’ড়ে খোয়াতে হবে। বনমালী। আমিই যাই । [ প্রস্থান চন্দ্রমাধববাবুর প্রবেশ চন্দ্রবাবু। পূর্ণ। শ্ৰীশ । আজ্ঞে, আমি শ্রীশ । চন্দ্রবাবু। আমাদের এই সভার সভ্যসংখ্যা অল্প হওয়াতে কারও হতাশ্বাস হবার কোনো কারণ নেই— শ্ৰীশ । হতাশ্বাস ? সেই তো আমাদের সভার গৌরব । এ সভার মহৎ আদর্শ এবং কঠিন বিধান কি সর্বসাধারণের উপযুক্ত। আমাদের সভা অল্প লোকের সভা। চন্দ্রবাৰু। (কার্যবিবরণের খাতাটা চোখের কাছে তুলিয়া) কিন্তু আমাদের আদর্শ উন্নত এবং বিধান কঠিন বলেই আমাদের বিনয় রক্ষা করা কর্তব্য ; সর্বদাই মনে রাখা উচিত আমরা আমাদের সংকল্পসাধনের যোগ্য না হতেও পারি। ভেবে দেখো পূর্বে আমাদের মধ্যে এমন অনেক সভ্য ছিলেন যারা হয়তো আমাদের চেয়ে সর্বাংশে মহত্তর ছিলেন, কিন্তু তারাও নিজের স্থখ এবং সংসারের প্রবল আকর্ষণে একে একে লক্ষ্যভ্রষ্ট