প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৫৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*色。 রবীন্দ্র-রচনাবলী অথচ সে বেচার বন্দী— খাচার পাখির মতে কেবল এ পাশে ও পাশে ছট্‌ফট্‌ করে— প্রিয়চক্ষু যেখানে সেখানে পাথা মেলে উড়ে যেতে পারে না । রসিক । আবার দেখাদেখির ব্যাপারখানাও যে কিরকম নিদারুণ তাও শাস্ত্রে লিখছে— হত্বা লোচনবিশিখৈর্গত্ব কতিচিং পদানি পদ্মাক্ষী জীবতি যুবা ন বা কিং ভূয়ো ভূয়ো বিলোকয়তি । বিধিয়া দিয়া আঁখিবাণে যায় সে চলি গৃহপানে, জনমে অনুশোচনা – বঁচিল কি না দেখিবারে চায় সে ফিরে বারে বারে কমলবরলোচনা | পূর্ণ। রসিকবাবু, বারে বারে ফিরে চায় কেবল কাব্যে। o রসিক। তার কারণ, কাব্যে ফিরে চাবার কোনো অসুবিধে নেই। সংসারটা যদি ওই রকম ছন্দে তৈরি হত তা হলে এখানেও ফিরে ফিরে চাইত পূৰ্ণবাবু এখানে মন ফিরে চায়, চক্ষু ফেরে না । পূর্ণ। (সনিশ্বাসে ) বড়ো বিশ্ৰী জায়গা রসিকবাবু।– কিন্তু, ওটা আপনি বেশ বলে ছেন – প্রিয়চক্ষু-দেখাদেখি যে আনন্দ তাই সে কি খুজিছে চঞ্চল । রসিক। আহা পূৰ্ণবাবু, নয়নের কথা যদি উঠল, ও আর শেষ করতে ইচ্ছা করে नी - লোচনে হরিণগর্বমোচনে মা বিদূষয় নতাঙ্গি কজলৈ ৷ সায়ক: সপদি জীবহারকঃ কিং পুনহিঁ গরলেন লেপিতঃ। হরিণগর্বমোচন লোচনে কাজল দিয়ে না, সরলে। এমনি তো বাণ নাশ করে প্রাণ কী কাজ লেপিয়া গরলে। পূর্ণশ থামুন রসিকবাবু। ওই বুঝি কারা আসছেন।