প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२१० রবীন্দ্র-রচনাবলী রসিক । আপনারা মহৎ লোক, এরকম ত্যাগস্বীকার— শ্ৰীশ। বিলক্ষণ ! এর মধ্যে ত্যাগস্বীকার কিছুই নেই । বিপিন। এ তো আনন্দের কথা । রসিক। না না, তবু তো মনে আশঙ্কা হতে পারে যে, কী জানি নিজের ফঁাদে যদি নিজেই পড়তে হয় । শ্ৰশ। কিছু না মশায়, কোনো আশঙ্কায় ডরাই নে । বিপিন । আমাদের যাই ঘটুক তাতেই আমরা সুখী হব। রসিক । এ তো আপনাদের মহত্ত্বের কথা, কিন্তু আমার কর্তব্য আপনাদের রক্ষা করা । তা, আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি— এই শুক্রবারের দিনটা আপনারা কোনোমতে উদ্ধার করে দিন, তার পরে কখনো আপনাদের আর বিরক্ত করব না । শ্ৰীশ । আমাদের বিরক্ত করবেন না এই কথা শুনে দুঃখিত হলেম রসিকবাবু। রসিক । আচ্ছা, করব । বিপিন। আমরা কি নিজের স্বাধীনতার জন্যেই কেবল ব্যস্ত। আমাদের এতই স্বার্থপর মনে করেন ? # রসিক। মাপ করবেন— আমার ভুল ধারণা ছিল। শ্ৰীশ । আপনি যাই বলুন, ফস করে ভালো পাত্র পাওয়া বড়ো শক্ত । রসিক। সেইজন্যেই তো এত দিন অপেক্ষা করে শেষে এই বিপদ । বিবাহের প্রসঙ্গমাত্রই আপনাদের কাছে অপ্রিয়, তবু দেখুন আপনাদের সুদ্ধ-- বিপিন। সেজন্যে কিছু সংকোচ করবেন না--- শ্ৰীশ । আপনি যে আর-কারও কাছে না গিয়ে আমাদের কাছে এসেছেন, সেজন্যে অস্তরের সঙ্গে ধন্যবাদ দিচ্ছি । রসিক। আমি আর আপনাদের ধন্যবাদ দেব না। সেই কন্যা দুটির চিরজীবনের ধন্যবাদ আপনাদের পুরস্কৃত করবে। বিপিন ওরে, পাথাটা টান । শ্ৰীশ। রসিকবাবুর জন্যে জলখাবার আনাবে বলেছিলে— বিপিন। সে এল বলে । ততক্ষণ এক গ্লাস বরফ-দেওয়া জল খান— ঐশ। জল কেন, লেমনেড আনিয়ে দাও-না । ( পকেট হইতে টিনের বাক্স বাহির করিয়া ) এই নিন রসিকবাবু, পান খান । । বিপিন। ও দিকে হাওয়া পাচ্ছেন ? এই তাকিয়াটি নিন-না ! ঐশ । আচ্ছা রসিকবাবু, নৃপবালা বুঝি খুব বিষন্ন হয়ে পড়েছেন—