প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৯৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী উন্নতি উপরে যাবার সিড়ি, তারি নীচে দক্ষিণের বারান্দায় নীলমণি মাস্টারের কাছে । সকালে পড়তে হত ইংলিশ রীডার ভাঙা পাচিলের কাছে ছিল মস্ত তেঁতুলের গাছ। ফল পাকবার বেলা ডালে ডালে ঝপাঝপ বাদরের হ’ত লাফালাফি । ইংরেজি বানান ছেড়ে দুই চক্ষু ছুটে যেত লেজ-দোলা বাদরের দিকে । সেই উপলক্ষে— আমার বুদ্ধির সঙ্গে রাঙামুখে বাদরের নির্ভেদ নির্ণয় করে মাস্টার দিতেন কানমলা । ছুটি হলে পরে শুরু হত আমার মাস্টারি উদ্ভিদ-মহলে । ফলসা চালতা ছিল, ছিল সার-বাধা স্বপুরির গাছ । অনাহূত জন্মেছিল কী করে কুলের এক চার বাড়ির গা ঘেঁষে । *সেটাই আমার ছাত্র ছিল । ছড়ি দিয়ে মারতেম তাকে । বলতেম “দেখ দেখি বোকা, উচু ফলসার গাছে ফল ধরে গেল, কোথাকার বেঁটে কুল উন্নতির উৎসাহই নেই।’