পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* அதே রাজা ও রাণী ওরে হিংস্ৰ নারী ! ওরে নরকাগ্নিশিখা ! বন্ধুত্ব আমার সনে । এতদিন পরে আপনার হৃদয়ের প্রতিমূৰ্ত্তিখানা দেখিতে পেলেম ওই রমণীর মুখে ! অমনি শাণিত ক্রুর বক্র জালারেখা আছে কি ললাটে মোর ? রুদ্ধ হিংসাভারে অধরের দুই প্রান্ত পড়েছে কি কুয়ে ? অমনি কি তীক্ষু মোর উষ্ণ তিক্ত বাণী খুনীর ছুরির মত বাকা বিষমাপা ? নহে নহে কৰ্ভু নহে ! এ হিংসা অামার চোব নহে, ক্রুর নহে, নহে ছদ্মবেশী । প্রচণ্ড প্রেমের মত প্রবল এ জালা অভ্ৰভেদী সৰ্ব্বগ্রাসী উদ্দাম উন্মাদ দুৰ্নিবার । নহি আমি তোদের আত্মীয় । হে বিক্রম, ক্ষণস্ত কর এ সংহাব খেলা ! এ শ্মশাননুত্য তব থামাও থামাও ; নিবাও এ চিতা ! পিশাচ পিশাচী যত অতৃপ্ত হৃদয়ে ল’য়ে দীপ্ত হিংসাতৃষা ফিরে যাক রুদ্ধরোষে, লালায়িত লোভে । একদিন দিব বুঝাইয়া, নহি আমি তোমাদের কেহ । নিরাশ করিব এই গুপ্ত লোভ, বক্র রোষ, দীপ্ত হিংসাতৃষা ? দেখিব কেমন করে? আপনার বিষে অণপনি জলিয়া মরে নর-বিষধর । রমণীর হিংস্রমুখ স্থচিময় যেন—