পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রথম অঙ্ক দে। না হাসিয়া করিব কি ! অরণ্যে ক্ৰন্দন সে ত বালকের কাজ ;—দিবস রজনী বিলাপ না হয় সহ তাই মাঝে মাঝে রোদনেব পরিবর্তে শুষ্ক শ্বেত হাসি জমাট অশ্রুব মত তুষার কঠিন ! কি ঘটেছে বল শুনি ! भ । জন ত সকলি ! রাণীব কুটুম্ব যত বিদেশী কাশ্মীরা দেশ জুড়ে’ বসিয়াছে ; বাজাব প্রতাপ ভাগ কবে? লইয়াছে খণ্ড খণ্ড কবি, বিষ্ণুচক্রে ছিন্ন মৃত সতী-দেহ সম । বিদেশব অত্যাচারে জর্জর কাতর কাদে প্রজা | অবাজক বাজ সভামাঝে মিলায় ক্ৰন্দন । বিদেশ অমাত্য যত বসে’ বসে’ ছাসে । শূন্ত সিংহাসন পাশ্বে বিদার্ণ-হৃদয় মন্ত্রী বসি’ নাতশিরে ! দে। বহে ঝড়, ডোবে তবা, কাদে যাত্রী যত, বিত্ত হস্ত কর্ণধাব উচ্চে এক বসি’ বলে ‘কৰ্ণ কোথা গেল !’ মিছে খুজে মব, রমণা নিয়েছে টেনে রাজকর্ণখানা, বাহিছে প্রেমেব তরী লীলা সৰোবরে বসন্ত পবনে –রাজ্যেব বোঝাই নিয়ে মন্ত্রীট মরুক্‌ ডুবে অকূল পাথারে! ম। হেসো না ঠাকুব ! ছি ছি, শোকের সময়ে হাসি অকল্যাণ !