পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রথম অঙ্ক ১৩ নন্দ । ববাবর তাই বলচি, কিন্তু বোঝে কে ? ছোট লোক কি না ! দেব। (মনসুখেব প্রতি ) তোমাকেই এর মধ্যে বুদ্ধিমানেব মত দেখাচ্চে, আচ্ছ। তুমিই বল দেখি, কথাগুলো কি ভালো হচ্চিল ? ( কুঞ্জবেব প্রতি ) অাব তোমাকেও ত বেশ ভালো মানুষ দেখছি হে, তোমাব নাম কি ? কুঞ্জব। অামাব নাম কুঞ্জরলাল—কাঞ্জিলাল আমাব ভাইপোব নাম । দেব । ওঃ—তোমাবত ভাইপোব নাম কাঞ্জিলাল বটে ? তা আমি বজাব কাছে বিশেষ কবে? তোমাদের নাম কবব । ই বেদীন। আব আমাদেব কি হবে ? দেব । তা আমি বলতে পাবিনে বাপু ! এখন ত তোবা কান্না ধবে চস্—এই একটু আগে অাব এক সব বেব করেছিলি। সে কথাগুলো কি পাজ শোনেন ? বাজা সব শুনতে পায় । অনেকে। দোহাই ঠাকুব, আমবা কিছু বলিনি, ঐ কাঞ্জলাল ন৷ মঞ্জলাল অস্তরেব কথা পেডেছিল। কুঞ্জব । চুপ কর। অামাব নাম থাবাপ কবিস্নে। আমাব নাম কুঞ্জবলাল, তা মিছে কথা বলব না—আমি বলছিলুম, “যেমন শাস্তব আছে, তেমনি অস্তবও আছে,—বাজা যদি শাস্তরেব দোহাই না মানে, তখন অস্তল আছে ।” কেমন বলেছি ঠাকুব ? দেব। ঠিক বলেচ —তোমাব উপযুক্ত কথাই বলেচ। অস্ত্র কি ? মা, বল। তা তোমাদেল বল কি ? না “দুৰ্ব্বলন্ত ললং বাজা”—কি না, বাজাই দুৰ্ব্বলেল বল। আবার “বালানাং বোদনং বলং” বাজাব কাছে তোমবা বালক বই নও। অতএব এখানে কান্নাই তোমাদেব অস্ত্র । অতএব শাস্তব যদি না খাটে ত তোমাদেব অস্ত্র আছে কান্না । বড় বুদ্ধিমানেৰ মত কথা বলেচ—প্রথমে আমাকেই ধাদা লেগে গিয়েছিল। তোমার নামটা মনে রাখতে হবে। কি হে তোমার নাম কি !