পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাজ ও রাণী কোথা কোন তৃণতলে কোন বনফুল আনন্দে ফুটিছে তা’র কনককিরণে । কৃপাবৃষ্টি কর অবহেলে, যে পায় সে ধন্ত হয় । বিক্রম । থাম, থাম, যথেষ্ট হয়েছে। আমি যত অবঙ্গেলে কৃপাবৃষ্টি করি তা’র চেয়ে অবহেলে সভাসদগণ করে স্তুতিবৃষ্টি । বল ত হয়েছে শেষ যত কথা কবেছ বচন । যাও এবে ! ( সভাসদের প্রস্থান ) স্থমিত্রার প্রবেশ কোথা যাও একবার ফিরে চাও রাণী । রাজা আমি পৃথিবীর কাছে, তুমি শুধু জান মোরে দীন বলে’ ৷ ঐশ্বৰ্য্য আমার বাহিরে বিস্তৃত—শুধু তোমার নিকটে ক্ষুধাৰ্ত্ত কঙ্কালসার কাঙাল বাসনা । তাই কি ঘৃণার দৰ্পে চলে যাও দূরে মহারাণী, রাজরাজেশ্বরী ? সুমিত্রা । মহারাজ, যে প্রেম করিছে ভিক্ষণ সমস্ত বসুধা একা আমি সে প্রেমের যোগ্য নই কণ্ডু ! বিক্রম। অপদার্থ আমি | দীন কাপুরুষ আমি ! কৰ্ত্তব্যবিমুখ আমি, অন্তঃপুরচারী ! কিন্তু মহারাণী, সে কি স্বভাব আমার ?