পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিক্রম । বিক্রম । डौिँझ ठक्क আমি ক্ষুদ্র, তুমি মহীয়সী ? তুমি উচ্চে, আমি ধূলি মাঝে ? নহে,তাহা । জানি আমি আপন ক্ষমতা । রয়েছে দুর্জয় শক্তি এ হৃদয় মাঝে ; প্রেমেব আকারে তাহা দিয়েছি তোমাবে। বজ্রাগ্নিরে কবিয়াছি বিদ্যুতের মালা ; পবায়েছি কণ্ঠে তব । ঘৃণা কর, মহারাজ, ঘৃণা কর মোরে সেও ভালো—একেবারে ভুলে যাও যদি সেও সহ্য হয়-ক্ষুদ্র এ নারীর পবে করিয়ো না বিসর্জন সমস্ত পৌরুষ। এত প্রেম, হায় তা’র এত অনাদর ! চাহ না এ প্রেম ? না চাহিয়া দস্থ্যসম নিতেছ কাড়িয়া। —উপেক্ষার ছুরি দিয়া কাটিয়া তুলিছ, রক্তসিক্ত তপ্ত প্রেম মৰ্ম্মবিদ্ধ করি! ধূলিতে দিতেছ ফেলি নিৰ্ম্মম নিষ্ঠুব ! পাষাণ-প্রতিমা তুমি, যত বক্ষে চেপে ধরি অনুরাগভরে, তত বাজে বুকে । চরণে পতিত দাসী, কি করিতে চাও কর । কেন তিরস্কার ? নাথ, কেন আজি এত কঠিন বচন ? কত অপরাধ তুমি করেছ মার্জনা, কেন রোষ বিনা অপরাধে ? 聽 প্রিয়তমে, উঠ, উঠ,—এস বুকে—স্নিগ্ধ আলিঙ্গনে