পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বমিত্ৰা । বিক্রম। সুমিত্র । বিক্রম। দ্বিতীয় অঙ্ক নিজে যাও তুমি । আমি কি তোমার উপদ্রব, অভিশাপ, দুরদৃষ্ট, দুঃস্বপন, করলগ্ন কাটা ? হেথা হ’তে একপদ নড়িব না, রাণি, পাঠাইব সন্ধির প্রস্তাব । কে ঘটালে এই উপদ্রব ? ব্রাহ্মণে নারীতে মিলে বিবরের সুপ্তসৰ্প জাগাইয়া তুলি এ কি খেলা ! আত্ম-রক্ষা-অসমর্থ যারা নিশ্চিন্তে ঘটার তা’র পরের বিপদ ! ধিক্ এ অভাগা রাজ্য, হতভাগ্য প্রজা ! ধিক্ আমি, এ রাজ্যের রাণী ! দেবদত্ত, বন্ধুত্বের এই পুরস্কার ? বৃথা আশা ! রাজার অদৃষ্টে বিধি লেখেনি প্রণয় ; ছায়াহীন সঙ্গীহীন পৰ্ব্বতের মত এক মহাশূন্ত মাঝে দগ্ধ উচ্চ শিরে প্রেমহীন নীরস মহিমা ; ঝঞ্জাবায়ু করে আক্রমণ, বজ্র এসে বিধে, স্বৰ্য্য রক্তনেত্রে চাহে ; ধরণী পড়িয়া থাকে চরণ ধরিয়া ! কিন্তু ভালবাসা কোথা ? রাজার হৃদয় সেও হৃদয়ের তরে কঁাদে ; হায় বন্ধু, মানবজীবন ল’য়ে রাজত্বের ভাণ করা শুধু বিড়ম্বন ! দম্ভ-উচ্চ সিংহাসন চূর্ণ হ’য়ে গিয়ে 8Ꮌ ( প্রস্থান )