পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ԳԵ- রাজা ও রাণী যুদ্ধ, এর জন্তে অমনি কাশ্মীর থেকে সৈন্ত এল, এর চেয়ে উপহাস আর কি হ’তে পারে ? এই শুনে মহারাজ আগুন হ’য়ে কুমারসেনকে পাচটা ভৎসনা করে এক দূত পাঠিয়ে দেন। কুমারসেন উদ্ধত যুবা পুরুষ, সহ কৰ্ত্তে পাববে কেন ? বোধ করি সে-ও দূতকে দু-কথা শুনিয়ে দিয়ে থাকবে । নারা । তা বেশত—কুমাবসেন ত বাজাব পর নয় আপনার লোক, তা কথা চলছিল বেশ তাই চলুক। তুমি কাছে না থাকলে রাজার ঘটে কি দুটো কথাও জোগায় না ? কথা বন্ধ করে? অস্ত্র চালাবার দবকার কি বাপু ! ঐ ওতেই ত হার হ’ল। দেব। আসল কথা একটা যুদ্ধ কববার ছুতো। রাজা এখন কিছুতেই যুদ্ধ ছাড়তে পারচেন না । নানা ছল অন্বেষণ করচেন। রাজাকে সহসা করে দুটাে ভালো কথা বলে এমন বন্ধু কেউ নেই। আমি ত আর থাকতে পারচিনে—আমি চলুম। ነ নারা । যেতে ইচ্ছে ছয় যাও, আমি কিন্তু একৃলা তোমার ঘরকন্ন করতে পারব না। তা আমি বলে রাখলুম ! এই রইল তোমার সমস্ত পড়ে রইল। আমি বিবাগী হ’য়ে বেরিয়ে যাব । * দেব । রোসে আগে আমি ফিরে আসি তা’ব পরে যেয়ে । বল ত আমি থেকে যাই । নারা । না না তুমি যাও ! আমি কি আর তোমাকে সত্যি থাকতে বলচি ? ওগো তুমি চলে গেলে একেবারে বুক ফেটে মবব না, সে-জন্তে ভেবো না । আমার বেশ চলে যাবে। দেব। তা কি আর আমি জানিনে। মলয় সমীরণ তোমার কিছু কর্তে পারবে না। বিরহ ত সামান্ত, বজ্রাঘাতেও তোমার কিছু হয় না। ( প্রস্থানোন্মুখ )