পাতা:রাজা ও রাণী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম অঙ্ক 約○ কুমারের পরে ; প্রাণে বাজে, ইচ্ছা করে ডেকে নিয়ে বেধে রাখি বক্ষমাঝে, স্নেহ দিয়ে দূর করি আঘাত-বেদনা ! রেবতা। শিশু তুমি ! মনে কর আঘাত না করে’ আপনি ভাঙিবে বাধা ? পুরুষের মত যদি তুমি কার্য্যে দিতে হাত আমি তবে দয়া মায়া করিতাম ঘবে বসে’ বসে’ অবসর বুঝে । এখন সময় নাই। ( প্রস্থান ) চন্দ্র । অতি-ইচ্ছা চলে অতি-বেগে । দেখিতে না পায় পথ, তাপনারে করে সে নিস্ফল ! বায়ুবেগে ছুটে গিয়ে মত্ত অশ্ব যথা চূর্ণ করে ফেলে রথ পাষাণ-প্রাচীরে! দ্বিতীয় দুখ্য কাশ্মীর—হাট লোকসমাগম ১ । কেমন হে খুড়ো, গোলা ভরে ভরে যে গম জমিয়ে রেখেছিলে, আজ বেচবার জন্তে এত তাড়াতাড়ি কেন ? ২। না বেচলে কি আর রক্ষে আছে ? এদিকে জালন্ধরের সৈন্ত এল বলে । সমস্ত লুঠে নেবে। আমাদের এই মহাজনদের বড় বড়