পাতা:রামতনু লাহিড়ী ও তৎকালীন বঙ্গসমাজ.djvu/৩৫৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৯৪
রামতনু লাহিড়ী ও তৎকালীন বঙ্গসমাজ

১৮৬৭ সালের ১৬ই ফেব্রুঘারি দিবসে ব্রিটিশ মেডিকেল এসোসিএশনের ৰঙ্গদেশীয় শাখার চতুর্থ সাম্বৎসরিক অধিবেশন। হইল। সেই দিন ডাক্তার। সরকার “চিকিৎসা-প্রণালীর অনির্দিষ্টতা” বিষয়ে একটী বক্ত, তা পাঠ করিলেন। তাহাতে ভূমোদর্শন, চিস্তাশীলতা, সত্যপ্ৰিয়তানির্ভীকচিত্ততা সমুদ একাধারে উজ্জলরূপে প্ৰকাশ পাইয়াছিল॥ তাহাতে তিনি এলোপেথিক চিকিৎসা প্রণালীর সর্বজন-বিনিৰ্দিষ্ট কতকগুলি দোষ কৗত্তন করিয়া হানিমানের আবিষ্কৃত প্রণালীর যুক্তিযুকতা প্রদর্শন করিতে অগ্রসর হইলেন। ইহার ফল। যাহা দাড়াইল তাহ৷ বোধ হয় তিনি অগ্রে সম্ভব বলিয়া বিবেচনা করেন নাই।

তাহার বক্ত, তা শেষ হইলে, ইংরাজ ডাক্তারগণ মহা আপত্তি উত্থাপন করি লেনাঁ ডাক্তার ওয়ালার নামে একজন ইংরাজ ডাক্তার চটিয়া লাল হইয়া গেলেন। ডাক্তার সরকার কাহারও কাহারও আপত্তির উত্তর দিতে প্রবৃত্ত হইলে তিনি থামাইয়া দিবার চেষ্টা করিলেন; বলিলেন ‘ডাক্তার সরকার! ডাক্তার সরকার! আর একটা কথা যদি বল, তবে তোমাকে এখান হ’তে বাহির করে দেব। " পরে তিনি এই মত প্রকাশ করিলেন, যে ডাক্তার সরকার উক্ত সভার সহকারী সভাপতি থাকা দূরে থাক, সভ্য থাকিলে তিনি তাহার সভ্য থাকিবেন না। ডাক্তার ই ওয়ার্চ, ডাক্তার চক্রবর্তী প্রভৃতি এরূপ মতে সায় দিলেন। সভামধ্যে আগ্নে্যুগিরির অগ্নIৎপাতের তায় সভ্যগণের ক্ৰোধ-বহুি প্রজ্জলিত হইল।

ডাক্তার সরকার সুদৃঢ় প্রতিজ্ঞা হৃদয়ে লইয়া ধীর গম্ভীর ভাবে গৃহে প্রতিনিবৃত্ত হইলেন। বাড়ীতে আসিয়া বলিলেন ‘আমি চাষার ছেলে, না হয়। সামা্য কাজ করে থাব তাতে আর কি? সত্য যা ত৷ বলতেই হবে ও করতেই হবে”। ওদিকে সংবাদ পত্রের স্তম্ভ সকল এই বাৰ্তাতে পূর্ণ হইতে লাগিল। মেডিকেল মিশনারি ডাক্তার রবসন তাহার বিরুদ্ধে এক বর্তৃতা করিলেন; ডাক্তার ইওয়াৰ্ট সংবাণ পত্রে অন্ত্র ধারণ করিলেন।; এবং চিকিৎসকগণ এক বাক্যে তাহাকে বর্জন করিলেন। সহর তোলপাড় হইয়া যাইতে লাগিল। ডাক্তার সরকারের পসার কিছু দিনের জন্য মাটী হইয়া গেল। ছয় মাসের মধ্যে তিনি একটীও রোগী পাইগেন না। কিন্তু তিনি নির্ভীক চিত্তে দণ্ডারমান। রহিলেন। যাহ৷ সত্য বলিয়া বুবিয়াছিলেন তাহ ঘোষণা করিতে বিরত হইলেন না॥ পর বৎসরেই তাহার Calcutta Journal of Medicine বাহির হইল। লোকে দেখিতে পাইল মানুঘটা দমে নাই; যাহাকে সত্য বলিয়া বুঝিয়াছে তাহাতে প্ৰাণ সমৰ্পণ করিয়াছে। এই ঘোর পরীক্ষার মধ্যে