পাতা:রামতনু লাহিড়ী ও তৎকালীন বঙ্গসমাজ.djvu/৩৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।
৩২৯
ত্রয়োদশ পরিচ্ছেদ॥

ইহার কাৰ্য্যে তাঁহার অবিভ্রান্ত মনোযোগ ছিল। তাহার ইচ্ছা ছিল বে পুনার ফাও সন কালেজের ছাতৃমণ্ডলীর ন্যায় একটী ত্যাগশীল জাতৃমণ্ডলী গঠন করিয়া, তাহাদের হাতে কালেজটী দিয়া যান; কিন্তু ঐ কালেজ-সংসৃষ্ট। বন্ধুগণের প্রতিকূলতা বশতঃ তাহ৷ সম্পূৰ্ণ করিয়| উঠিতে পারেন নাই; অবশেষে কালেজটী। টুইডীড় করিম্ব সাধারণ ব্রাহ্মসমাজের হস্তে দিয়া গিয়াছেন।

 ১৮৮৪ সালে গবৰ্ণর জেনেরাল লর্ড রিপনের বিশেষ অনুরোধে তিনি এডুকেশন কমিশনের সভ্য হন; এবং তাহার কার্য্য সমাধা করিবার জন্য যথেষ্ট পরিশ্রম করেন। কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তাহাকে আপনাদের প্রতিনিধি রূপে লেপ্টনাট গবৰ্ণরের ব্যবস্থাপক সভাতে প্রেরণ করেন। তদ্ভিন্ন গবৰ্ণমেন্ট তাহাকে উক্ত সভার সভ্যরূপে মনোনীত করেন। এতদ্ভিন্ন তিনি কলিকাতা। মিউনিসিপালিটীর কমিশনাররূপেও মনোনীত হইয়াছিলেন।

 বস্তুতঃ কিরূপে একজন মানুষ এত বিষয়ে মনোযোগ দিতে পারি, তাহ৷ ভাবিলে আশ্চর্যান্বিত হইতে হয়। আমরা সকলে দেখিয়া আশ্চর্যান্বিত হইতাম যে যখন তিনি ব্রাহ্মসমাজে অবিশ্ৰান্ত থাটিতেছেন, সিটীকালেজে ও বিশ্ববিস্তা লয়ের সিণ্ডিকেটে পরিশ্রম করিতেছেন, লেপ্টনান্ট গবৰ্ণরের ব্যবস্থাপক সভাতে নুতন আইন প্রণয়ন বিষরে। পরামর্শ দিতেছেন, ভারতসভাতে রাজনীতির চিন্তা করিতেছেন, তখন জাবার। বন্ধুগণের সহিত মিলিৱা দেশের স্থনীতি ও সুরাপান নিবারণের জন্য পরিশ্রম করিতেছেন। মেট্ৰপলিটান টেম্পারেন্স ও পিউরিটী এসোসিএশানের তিনি সভাপতি ছিলেন। মুরাপান নিবারণ বিষয়ে। বড় চেষ্ট। তিনি যৌবনের প্রারম্ভ হইতে করিয়া আসিয়াছেন। পঠদশার। ইংলঙে গির। সেখানকার সুরাপান নিবারিণী সভার সভ্যগণের সহিত মিলিয়। কাজ করিয়াছেন; এখানে প্যারীচাদ সরকার ও কেশব চন্দ্র সেন মহাশয়ের সহিত মিলিয়৷ সুরাপান নিবারণের জন্য খাটিস্মাছেন এবংশেবদশাতে দেহে বত দিন শক্তি থাকিয়াছে, ততদিন এক্ষেত্রে পরিশ্রম করিয়াছেন।

 রাজনীতি বিভাগেও তাহার কার্য বড় অল্প ছিল না॥ অগ্ৰেই বলিয়াছি পঠদশাতে ইংলঙে গিয়৷ উদারনৈতিক ও .ভারতহিতৈষী ফসেট প্রভৃতির সহিত মিশিয়া৷ রাজনীতির চর্চা করিতেন। দেশে ফিরিয়া আসিয়াই দেখিলেন। সেশের মধ্যবিত্ত শ্রেণীরু মাহুষদের জঠ কোনও রাজনৈতিক সভা নাই; তাই উভোগী হইয়া সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় মহাশয় প্রভৃতি বন্ধগণের সহিত একযোগে ১৮৭৬ সালে ভারত সভা স্থাপন করিলেন। ইহা অগ্রেই উক্ত হইয়াছে। তিনি