পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শোভার দৌত্য > ०१ হইয়া তোমার গর্ভে এ অধমকে প্রোথিত করিলে না ? মহারাজ জয়সিংহ !—তোমার খড়গ কেন এখনও আমার মস্তকচ্ছেদ করিতে পারিল না ?” বীরসিংহ ভাবিতে লাগিলেন,—“আমি কি করিতে আসিয়াছিলাম ! আমার উপর কি করিবার ভার দ্যস্ত হইতেছে। ভগবন! এ তোমার কি ভীষণ পরীক্ষা। ইহার অপেক্ষ আমার প্রাণদণ্ড যে সহস্র গুণে শ্রেয়ঃ ছিল |” বীরসিংহকে নীরব দেখিয়া, শোভা পুনরায় কছিলেন,— “আর সময় নাই। আর বিলম্ব করিবেন না। আসুন—অস্ত্রধারণ করুন-বিপক্ষ-সেনার সংহার-সাধনে প্রবৃত্ত হউন ,” বীরসিংহ।–“এ অপেক্ষা আমার প্রাণদণ্ড যে সহস্র গুণে শ্ৰেয়ঃ ছিল। আপনি কেন আমার প্রাণ-রক্ষা করিলেন ?” শোভা মনে মনে কহিলেন, —“বীরসিংহ ! তুমি জিজ্ঞাসা করিতেছ—কেন আমি তোমার প্রাণ-রক্ষা করিলাম ? এখন এ কথার কি উত্তর দিব ! যদি ভগবান কখনও দিন দেন, তখন অবশুই এ কথার উত্তর পাইবে।” শোভা বীরসিংহের প্রশ্নের কোনও উত্তর দিতে পারিলেন না। শোভা কহিলেন,— কুমার ! এ প্রশ্নের উত্তর দিবার সময় এখন নয়। এখন যাহাতে আমরা বিপদ হইতে উদ্ধার পাই, তাহার উপায়বিধান করুন।” ” বীরসিংহ উত্তর দিলেন।–“আমি কি উপায় করিব ? আমায় ক্ষমা করুন।” শোভা ফণিনীর ন্যায় গৰ্জ্জিয়া উঠিলেন ; কহিলেন,— “আপনি মুহূৰ্ত্ত পূৰ্ব্বে কি প্রতিজ্ঞা করিয়াছেন, স্মরণ আছে কি ? ক্ষত্রিয়-সন্তান কখনও প্রতিজ্ঞা লঙ্ঘন করেন না ।