পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


) NS লক্ষণ-সেন । মনে মনে কহিতেছেন,—“ন-আমি পারিব না ! এ কার্য্য কখনই আমার দ্বার। হইবে না !” কিন্তু সে কথা কে শুনিবে ? ধীরসিংহকে বীরসাজে সজ্জিত করিবার সময় শোভা যতই তাহার চঞ্চলত উপলব্ধি করিতেছেন, ততই উৎসাহ-দানে কহিতেছেন,-“মনে রাখিবেন, আপনি ক্ষত্রিয়-সন্তান ! মনে রাখিবেন—আপনি কঠোর প্রতিজ্ঞায় আবদ্ধ হইয়াছেন। মনে রাখিবেন—ক্ষত্রিয়-সন্তান কখনই আপন প্রতিজ্ঞা-ভঙ্গ-পাপে লিপ্ত হয় না। আমার দৃঢ় ৰিশ্বাস —আপনার ন্যায় সদ্বংশজাত ক্ষত্রিয়-সন্তান প্রতিজ্ঞা-ভঙ্গপাপে লিপ্ত হইয়া কখনই নরকের পথ প্রশস্ত করিবেন না।” শোভার উত্তেজনা-পূর্ণ বাক্যে বীরসিংহের চিন্তাম্রোত অন্য পথ গ্রহণ করিতেছে ! বীরসিংহ পরক্ষণেই আপন মনে কহিতেছেন,-“শোভা ! সত্যই বলিয়াছ ! প্রতিজ্ঞা-রক্ষার অপেক্ষ ক্ষত্রিয়-সন্তানের পক্ষে মহত্তর সামগ্রী পৃথিবীতে আর দ্বিতীয় নাই। প্রতিজ্ঞা-পালনে পরায়ুথ জন পিতৃপুরুষগণকে পর্য্যন্ত নিরয়গামী করিয়া থাকে। আমার পিতার-আমার প্রভুর ইহলৌকিক মঙ্গল-সাধন করিতে গিয়া আমি কি তাহাদিগকে নিরয়গামী করিব ? না—কখনই না ! ক্ষত্রিয়-সন্তান আমি ; যে প্রতিজ্ঞ করিয়াছি, প্রাণপণে সে প্রতিজ্ঞা পালন করিব। এখন ইহাই আমার ধৰ্ম্ম ।” বীরসিংহ প্রকাশু্যে কহিলেন,--“আমাকে আর অধিক উপদেশ দিবার প্রয়োজন নাই । আমি প্রাণপাত করিয়াও আপনাদের উদ্ধার-সাধনের চেষ্টা করিব।” বীরসিংহের উত্তর শুনিয়া শোভা পুনরপি কহিলেন,—