পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বপ্নে। . ১২৩ ,ة معركة করিবেন। কিন্তু আপনিই বা আমার প্রতি কবে সে আদেশ করিলেন ?” ঠাকুর —“কেট ?--রাজা আনন্দদেব তো তোমায় কত্ত বুঝাইয়াছেন, কত অনুরোধ করিয়াছেন!” ব্যঞ্জক —“তিনি বলিয়াছেন বটে ; কিন্তু আপনি—” ঠাকুর।--“আনন্দদেব আমার পরম ভক্ত। ভক্তে আর আমাতে কি কিছু প্রভেদ আছে ? তুমি বালক ; তাই বিভ্রমগ্রস্ত হইয়া সত্য-তত্ত্ব উপলব্ধি করিতে পার নাই।” বালকের ধেন নূতন জ্ঞান সঞ্চার হইল। বালক ৰাষ্পগদগদ কণ্ঠে উত্তর দিল,—“ঠাকুর । অপরাধ হইয়াছে ; মার্জন করুন। এখন, আমায় কি করিতে হইবে, বলুন।" ঠাকুর —“রাজা আনন্দদেব যাহা আদেশ করেন, তাহ শোন ; যাও–পদ্মাবতীকে বিবাহ কর । পদ্মাবতী লক্ষ্মীস্বরূপিণী । তুমি নারায়ণের অংশ ।” চকিতে দেবতা চলিয়া গেলেন ; চকিতে বালকের ठझोउत्र श्हेन्न । “কৈ—কৈ-—কোথা গেলে ঠাকুর । অভাগাকে চরণে স্থান দিলে কৈ ?”—বালক উচ্চ চীৎকার করিয়া কঁাদিতে লাগিল। এদিকে রাত্রিও প্রভাত হইয়া আসিল । সংবাদ পাইয়া, প্রভাতে রাজা আনন্দদেব সেই কারাগুহে বালক ব্রহ্মচারীর নিকট আগমন করিলেন। বালক তখনও কঁদিতেছে,—“কৈ-কৈ—কোথা প্ৰভু ! কোথা ফেলে গেলে ! তোমার আগমনে আমার এ কারাগার যে বৈকুণ্ঠ-পুরী হইয়াছিল! তুমি অন্তৰ্দ্ধান হওয়ায় আবার ষে