পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


१२७ ।। লক্ষণ-সেন । ব্ৰহ্মচয়Lহয় t_ছন্ন নরদেহ প্রাপ্ত হইলে,-জন-ন কি— -- નાના સ્વર્જ્ડ উল্লেখ করি। তোমার পিতামাত কত কষ্টে তোমায় লালনপালন করিয়াছেন ! তোমায় হারাইয় তাহার এখন পাগলের ন্যায় দেশে দেশে ঘূরিয়া বেড়াইতেছেন। মায়ুৰ পুত্র-সন্তানের কামনা করে কি জন্য ? তাহদের প্রতি তোমার কি কোনও কৰ্ত্তব্য নাই ? পিতামাতার সেবা কি ব্রহ্মচৰ্য্য নয় ? তাই বলি, তুমি পদ্মাবতীকে বিবাহ কর, সংসারী হও, পিতামাতার সেবার জন্ম প্রস্তুত থাক। এখন, ইহাই তোমার ব্রহ্মচৰ্য্য—ইহাই তোমার সন্ন্যাস।” রাজা আনন্দদেবের বাক্যে ব্রহ্মচারীর যেন চমক ভাঙ্গিল। “রাজা আনন্দদেব তে সত্যই বলিয়াছেন! তাই তো— আমি এ কি করিতেছি!” ব্রহ্মচারীর মনে বড়ই অনুশোচন উপস্থিত হইল। “আমি যে আমার পিতামাতার নয়ন-মণি স্থিলাম! আমাকে হারাইয়। কঁাদিয়া কঁদিয়া তাহারা হয় তো অন্ধ হইয়া পড়িয়াছেন। অথবা, হয় তো উপহার। ইহজীবনই পরিত্যাগ করিয়াছেন। অহে !—আমি কি পাষণ্ড ! যে জন পিতামাতাকে কষ্ট দেয়, নরকেও যে তার স্থান নাই ! হায়-হায়!—আমি কি করিয়াছি! আমার ব্রহ্মচৰ্য্য পণ্ড হইয়াছে !” ব্রহ্মচারী বালককে নতমুখে চিন্তাক্লিষ্টভাবে দাড়াইয়া থাকিতে দেখিয়া, রাজা আনন্দদেব জিজ্ঞাসা করিলেন,— “জয়দেব! তুমি কি ভাবিতেছ।" ব্রহ্মচারী।–“রাজন! আমার উপায় কি হবে ? অামার SAAAAAA AAAA AAAA AAAAS AAASASASS SSSS