পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> ○○ লক্ষণ-সেন জয়দেব কহিলেন,—“আজ আমার স্নান করিয়া আসিতে বড়ই বিলম্ব হইয়াছে। সঙ্গীতের পাদপূরণ-চিন্তায় মন বিভোর থাকায় ইষ্টপূজায় পুনঃপুনঃ বিঘ্ন ঘটতেছিল। মনঃস্থৈৰ্য্য সম্পাদন করিয়া পূজায় বসিতে বড়ই বিলম্ব হয়। তাই স্বান করিয়া আসিতে এত বিলম্ব ঘটিল।” পদ্মাবতী প্রহেলিকা কিছুই বুঝিতে পারিলেন না। মনে মনে কহিলেন,—“প্ৰভু ! কেন এ ছলনা করিতেছেন ? এই ষে আপনি স্নান করিয়া আসিলেন । এই যে দাসী পদপ্রক্ষালন করিয়া দিল ! এই যে আপনি দাসীর প্রদত্ত ভোগ গ্রহণ করিলেন ! এই যে আপনি দাসীর জন্য প্রসাদ রাখিয় গেলেন ! সঙ্গীতের পাদ-পূরণ করিয়া, আনন্দে গদগদ হইয়া, এই যে আপনি রাজাকে সঙ্গীতটি শুনাইতে গেলেন ! তবে আবার এ কি বলিতেছেন! প্রভু! লীলাময়! ক্ষুদ্রবুদ্ধি দাসী ;– দেবতার লীলা কি বুঝিবে ? আপনি দিব্যজ্ঞান প্রদান করিয়া দাসীর ভ্রম অপনোদন করুন।" পদ্মাবতীকে মৌন দেখিয়া জয়দেব পুনরপি কহিলেন,— “বড় বেলা হইয়াছে ; তোমার বড় কষ্ট হইয়াছে। এই জন্যই তো তোমাকে আমি আমার স্বান করিয়া আসিবার পূৰ্ব্বেই জল-গ্রহণ করিতে বলি!” পদ্মাবতী —“আপনি কি বলিতেছেন, আমি যে কিছুই বুঝিতে পারিতেছি না। যে আদ্র বস্ত্রে আপনি অল্পক্ষণ পূৰ্ব্বে আসিয়াছিলেন, যে বস্ত্র পরিবর্তন করিয়া রাখিয়া গেলেন, পুনরায় সেই আদ্র বস্ত্র আপনার পরিধানে কোথা হইতে আসিল ? আপনাকে আর্দ্রবস্ত্রে আসিতে দেখিয়া আমি বিক্ষিত হইয়াছি।"