পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৬৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৬8 লক্ষণ-সেন পরসেবাব্রতধারী মহাপুরুষ বনান্তরাল হইতে বীরসিংহের উচ্চ-চীৎকার শুনিতে পাইয়াছিলেন। তিনি ত্বরিত-পদে কুটিরে প্রত্যাগমম করিলেম । তঁহাকে দেখিয়াই শোভ কাদিয়া ফেলিলেন। কাদিতে কঁাদিতে কহিলেন,—“বুঝি সব কুরাইল ।” মহাপুরুষ নিকটে আসিলেন। বীরসিংহের পাশ্বে উপবেশন করিয়৷ একদৃষ্ট্রে বীরসিংহের মুখের পানে চাহিয়া রহিলেন । দেখিলেন,—বীরসিংহের শ্বাস-প্রশ্বাস প্রায় বন্ধ ! ধীরে ধীরে হাত ধরিয়া নাড়ী দেখিলেন। বুঝিলেন,—উত্তেজনা-হেতু বীরসিংহ মূৰ্ছাভাবাপন্ন। তখন, জলসেক প্রভৃতি দ্বারা মূৰ্ছ ঠাঙ্গাইবার চেষ্টা পাইলেন । শোভা ব্যঞ্জন করিতে লাগিলেন । অনেকক্ষণ পরে বীরসিংহের চৈতন্যোদয় হইল । শোভায় মুখের পানে চাহিয়া বীরসিংহ কহিলেন,—“আমি এ কোথায় ? পরসেবার্তধারী মহাপুরুষ উত্তর দিলেন,-“কথা কহিবেন ম।--উতলা হইবেন না। উত্তেজনায় পুনরায় মূর্ছ। আসিতে পারে। একটু ঘুমাইবার চেষ্ট করুন।” বীরসিংহ বিষাদ-স্বরে ক্ষীণকণ্ঠে কহিলেন,—“আমি কেম মরিলাম না!” দয়ানন্দ উত্তর দিলেন,-“স্থির ইউন। একটু নিদ্র যাইবার চেষ্টা করুন।" এই বলিয়া তিনি মস্তকে হাত বুলাইতে লাগিলেন। পুনরায় বীরসিংহের তন্দ্র। আসিল । দয়ানন কার্যান্তরে গমন করিবার অভিপ্রায় প্রকাশ করিলেন । শোভ তাহাকে বাধা দিলেন ; কহিলেন,—“ঠাকুর আপনি এভাবে ফেলিয়া গেলে আমার বড়ই আশঙ্কা হয়