পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম পরিচ্ছেদ। পদ্মাবতী । পদ্মাবতী খেলা-ঘরে পলা-খেল খেলিতেছিল। তাহার খেলার ঘরে জগন্নাথের একপনি পট ছিল। যখনই সে পিতামাতার দুশ্চিন্তার বিষয় বুঝিতে পারিত, তাহাদের নিকটে আর মা দাড়াইয়া, আপনার থেলার ঘরে ছুটিয়া যাইত এবং গললীকৃতবাসে জগন্নাথের নিকট প্রার্থনা জানাইত,—“হে জগবন্ধু ! হে দয়াল ঠাকুর । আমার পিতামাতার দুশ্চিন্তা দুর করুন ; আমায় চরণে স্থান দেন ।’ আজিও যখন তাহার পিতামাত তাহারই চিন্তায় আকুল হইয় পড়িয়াছিলেন, পদাবতী ছুটিতে ছুটিতে খেলার ঘরে গিয়াছিল ;–জগন্নাথকে সম্বোধন করি। আপনার মনের বেদন জ্ঞাপন করিয়াছিল। আজ যেন জগন্নাথের সহি পদ্মাবতীর কত কথাবাৰ্ত্ত। হইয়াছিল। পরবর্তী বলিয়াছিল—“আমার ভাবনায় আমার পিতামাত চিরদিনই অসুখী রহিলেন । কেনই বা জগন্নাথ এ সংসারে এ অভাগীকে আনিয়াছিলে! আমার জন্মের পর হইতে পিতামাত কেবলই অসুখী—চিন্তা-জ্বরে অহর্নিশ জর্জরিত!" কি ভাষায়, কি ভাবে, পদ্মাবতী ঐ ভাব ব্যক্ত করিয়াছিল এবং কি ভাষায়, কি ভাবে জগন্নাথ তাহাকে উত্তর দিয়াছিলেন, অপরের তাহ জানিবার বা বুঝিবার সস্তাবন নাই! কিন্তু পরাবতী খেলার ঘর হইতে ছুটয়া আসিয়া, যার