পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


९९० লক্ষণ-সেন । . ു.--്. ു জননীকে দেখিয়াই জয়দেৰ ছুটিয়া গিয়া চরণতলে লুটাইয়। পড়িলেন। বাষ্পবিরুদ্ধ কণ্ঠে কহিতে লাগিলেন,—“ম! অামি এসেছি। ” “মণি !—বাবা!—এলি!”—বলিয়। জননী সন্তানকে ক্রোড়ে টানিয়া লইলেন । দরদরধারে আনন্দাশ্র পতিত হইয়া উভয়েরই বক্ষঃস্থল প্লাবিত করিতে লাগিল । পদ্মাবতী শ্বশ্রাদেবীকে প্রণাম করিয়া একপাশ্বে দাড়াইয়া রহিলেন । পদ্মাবতীর পরিচয় প্রদান করিতে হইল না। বামাদেবী কিছুক্ষণ পূৰ্ব্বে কাত্যায়নীর যুখে ৰাহা শ্রবণ করিয়াছিলেন, তাহাই তাহার প্রত্যক্ষীভূত হইল। বুঝিলেন-ভগবানের কুপায় কাত্যায়নীর কামনা পূর্ণ হইয়াছে –লক্ষ্মী-নারায়ণের মিলন ঘটিয়াছে। পুত্র ও পুত্রবধূকে সঙ্গে লইয়৷ বামাদেবী গৃহাভিমুখে অগ্রসর হইলেন। মনে আনন্দ ধরে না । হৃদয় উল্লাসে উৎফুল্ল। AeSASAeA AeJSAeMMAeeAAAA মহারাজ লক্ষ্মণ-সেনের নিকট যথাসময়ে সংবাদ পৌঁছিল। যথাসময়ে রাজকৰ্ম্মচারিগণ-সমভিব্যাহারে ভোজদেব প্রত্যাবৃত্ত হইলেন। পদ্মাবতীর পিতামাতার কণেও যথাসময়ে জয়দেব ও পদ্মাবতীর মিলন-সংবাদ উপস্থিত হইল। আনন্দে তাহারা জগবন্ধুর চরণে প্রণতি জ্ঞাপন করিলেন। কিন্তু প্রবল আকাঙ্ক্ষা সত্বেও, প্রতিজ্ঞায় আবদ্ধ হেতু, তাহারা আর কন্যাজামাতাকে দেখিতে আসিতে পারিলেন না। তবে হৃষীকেশ কাত্যায়নীকে বলিলেন,—“কেমন ? বুঝিলে এখনজগবন্ধু কেমন করুণাময় ?” -