পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদ্মাবতী । Sసి কোলে ঝ"াপী ইয়া পড়িয়া, আনন্দ-গদগদ-কণ্ঠে যখন বলিতে লাগিল—“ম ! তুই আর ভবিস্নে ! ঠাকুর বলেছেনশীঘ্রই সকল ভাবনা দূর করে দেবেন।”—তখন, কাত্যায়নী অনেক চেষ্টা করিয়াও মনের আবেগ নিবারণ করিতে পারিলেন না। তাহার মনে হইল,—“ঠাকুর সকল মন্ত্রণই দূর করিবেন বটে ! তোকেও যেমন তাহার চরণে বিসর্জন দিব, আমিও তেমনি সাগরের জলে আত্ম-বিস ন করিব। তাহা হইলেই সকল যন্ত্রণার অবসান হইবে।” কাত্যায়নী কঁদিতে কাদিতে কহিলেন,—“ম ! এ অভাগীর পেটে কেন এসেছিলি মা ! তোরে পেয়ে অবধি, এক দিনের জন্য আমরাও সুখী হ’লাম ন, তোরেও সূখী কতে পারলাম না!" দরূদর অশ্রুধারায় কfতjiয়নীর বক্ষঃস্থল পরিপ্লাবিত হইল । পত্নীকে একান্ত বিচলিত দেখিয়া, পদ্মাবতীর পিতা fতরস্কারের ছলে কহিলেন,-"তুমি পাগল হ’লে নাকি ? তুমি অয়ন কগে, মেয়ে হতাশেই মার। যাবে যে ! ধৈর্য্য ধারণ কর । জগবন্ধুকে ড ক । তার সামগ্ৰী-তিনিই রক্ষা করবেন! ভেবে তে আর উপায় নাই!” - এই বলিয়৷ কণ্ঠকে কোলে লইয়া, ব্রাহ্মণ কহিলেন,— "চল মা, আমরা সব ঘোগড়-যন্ত্র করি-গে । পুরুষোত্তমে যেখানে জগন্নাথ মূৰ্ত্তিমান কাল আমরা সেইখানে গমন করিব। সেখানে সেই প্রত্যক্ষ দেবতাকে একবার দর্শন করিতে সাধ হয় না কি মা ?” পদ্মাবতী কহিল,—“সেপানে সেতে, তার চরণ দর্শনে, কার না সাধ হয়, বাবা!” পদ্মাবতী জননীর প্রতি মুখ ফিরাইয়া ۹۰۰ -٬۹۰ می ، بین ۷ تا ۹ م.: اسمه