পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিণামে । ২৩৫ মনে হইতেছিল—ঐ শ্বেত উৰ্ম্মিমালার মধ্যে যেন তিনি প্রবেশ করিলেন। এক একবার মনে করিতেছিলাম— যাই, আমিও ঝাপ দিই। এখনি তাহাকে ধরিতে পারিব । কিন্তু পরক্ষণেই চিত্ত সন্দেহ-দোলায় দোদুল্যমান হইতেছিল। মনে হইতেছিল,— অমুসরণ করিয়া যদি সঙ্গ লইতে না পারি ! কেন-না, কতক্ষণ পূৰ্ব্বে তিনি কতদূর অগ্রসর হইয়া গিয়াছেন, কেহই তো তাহ। বলিতে পারিল না ! আমি বনের পার্থীকে ডাকিয়া জিজ্ঞাসা করিলাম, কেহই উত্তর দিল না ! তীরস্থিত তরু-গুল্ম-লতা প্রভৃতিকে জিজ্ঞাসা করিলাম, তাহারাও তো কোনও উত্তর দিল না। তটিনী কলকল স্বরে কি বলিয়া গেল, পার্থীরা কিচিমিচি করিয়া কি বিদ্রুপ করিল, কিছুই বুঝিতে পারিলাম না o শোভা আকাশের পানে চাহিতে চাহিতে নদীর দিকে অগ্রসর হইতে লাগিলেন । কহিলেন,—“ঐ—ঐ তিনি ডাকিতেছেন! যাই—যাই !" শোভা জল-মধ্যে ঝম্পপ্রদানে উদ্যত হইলেন । দয়ানন্দ স্বামী শোভার হাত চাপিয়া ধরিলেন । শোভা হাত fছনাইয়া লইবার চেষ্ট পাইলেন । শোভা চীৎকার করিয়া কহিলেন,—বীরসিংহ !—“বীরসিংহ ! একটু অপেক্ষা কর । আমি যাইতেছি ! তোমায় ছাড়িয়। আমি এক দণ্ড বাচিব না।" চীৎকার গুনিয়া সেবানন্দ নিকটে আসিলেন। দয়াননা দীর্ঘনিশ্বাস পরিত্যাগ করিয়া কহিলেন,—“সেবানন্দ ! সকল চেষ্টা ব্যর্থ হইল ! এত করিয়া বীরসিংহের জীবন রক্ষা করিলাম ; এত করিয়া শোভাকে সাস্তুনা দিয়া রাখলাম ; এত করিয়া বৃন্দাকে খুজিয়া আনিয়া উহঁদের পরিচর্য্যায় নিযুক্ত করিলাম ;-সকলই পণ্ড হইল ! বীরসিংহ যেরূপ আত্মগ্লানি