পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৮১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


যষ্টিতম পরিচ্ছেদ । ○ আতিথ্য । সারস্বত উৎসব শেষ হইল। কুমার লক্ষ্মণেয় যৌবরাজ্যে অভিষিক্ত হইলেন। কুমারের রাজ্যাভিষেক-ক্রিয়া সমাপনন্তে মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন সস্ত্রীক পুরুষোত্তম যাত্রা করিলেন । পুরুষোত্তম-যাত্রার সময় মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন কেন্দুবিশ্ব হইতে জয়দেবকে একবার নবদ্বীপে আনয়ন করিয়াছিলেন । যাত্রাকালে জয়দেবের শ্ৰীমূৰ্ত্তি-দর্শনের আকাক্ষ হইয়াছিল; জয়দেবকে নবদ্বীপে আনয়নের সেও এক উদ্দেশু বটে। আর এক নিগূঢ় উদেশ্য-কেন্দুবিন্ধে জয়দেবের প্রতিষ্ঠিত রাধাশ্যামের সেবার জন্য অর্থ-সম্পং প্রদান ! মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন জয়দেবকে কি পরিমাণ অর্থ-সম্পং প্রদান করিয়াছিলেন, তাহ অবশ্যই অনেকে জানিতে পারেন নাই ; কিন্তু দেশময় রাষ্ট হইয়াছিল,— মহারাজ তাহাকে বিপুল ধন-রত্ন প্রদান করিয়া গিয়াছেন । জয়দেব যদিও সংসারাশ্রম গ্রহণ করিয়াছিলেন ; কিন্তু তিনি তো ব্রহ্মচর্য্য-ব্রত পরিত্যাগ করেন নাই ! তবে এ অর্থ-সম্পং মইয় তিনি কি করি বম ! পিতামাতার স্বৰ্গলাভের পর পরসেবা তাহার সন্ন্যাস-ব্রতের অঙ্গীভূত হয়। জয়দেব ও পদ্মাবতী রাধাশ্যামের পূজা ও পরসেবা লইয়াই বিব্রত ছিলেন। এ সংসারে সেবাত্রতে সংসারীর পক্ষে কিছু অর্থ-সামর্থ্যের প্রয়োজন হয়। মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন Հ8