পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৯৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৯২ লক্ষণ-সেন । ,WikitanvirBot (আলাপ) - .wR^^^^^^^^^^^^^^* حجیۃ"ب* بی প্রার্থনা মঞ্জুর করিলেই আমার অতিথি-সৎকার ব্ৰত উদ্যাপন হয়। মহারাঙ্গের সে উক্তি শুনিয়া আমার ভাবান্তর ঘটে। আমি মনে করি,-“আসে আমুক আততায়িগণ ; আমরা বিদ্যমান থাকিতে তাহাদের সকল দুরভিসন্ধিই ব্যর্থ হইবে।” তাই আমি মহারাজের প্রস্তাবে আর দ্বিতীয় বার আপত্তি করি নাই।” রঘুদেব —“আমিও সেই কথায় বিচলিত হইয়াছিলাম। আমরা বিদ্যমানে মহারাজ লক্ষ্মণ-সেনের শেষ আকাঙ্ক্ষা অপূর্ণ থাকিবে ? সত্যই তো!—তাহার কিসের অভাব ! অতিথিসৎকারে তিনি কেন বিমুখ হইবেন! সত্যই তো!—শক্ররই বা কি সামর্থ্য যে, আমরা বিদ্যমানে নবদ্বীপ-রাজ্যের নধাগ্র স্পর্শ করিতে পারে ? সেনাপতি মহাশয় ! আমি তো সেই সাহসে নির্ভর করিয়াই পরিশেষে মহারাজের প্রস্তাবে সম্মতিজ্ঞাপন করিয়াছিলাম।” সংগ্রাম-সিংহ।–“কিন্তু এখন উপায় কি ? দেশব্যাপী অশান্তি উপস্থিত হইবার সম্ভাবনা দেখা দিয়াছে। কি উপায়ে সে অশান্তির নিবৃত্তি করি! বড়ই দুলক্ষণ ! যে দিন হইতে মহারাজের আদেশ প্রচারিত হইয়াছে, সেই দিন হইতে প্রত্যহই আমরা সংবাদ’ পাইতেছি, সাধু-সন্ন্যাসিগণ নবদ্বীপরাজ্য পরিত্যাগ করিয়া পলায়ন করিতেছেন।” রঘুদেব।—“সেই সংবাদ অবগত হইয়াই তো আজি নিভৃতে আপনার সহিত পরামর্শ করিতে আসিয়াছি। মিথিলা রাজ্যের প্রাস্তস্থিত ভৈরবনাথের মন্দির হইতে একজন সাধুপুরুষ আসিয়াছেন। র্তাহার নিকট ষে সংবাদ শ্রবণ করিলাম, সে সংবাদে মন বড়ই বিচলিত করিয়া তুলিয়াছে।”