পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিচারে | 8이 AJBMMMMAMSMMMMMAMAMMMMMAA ASASASA AAAAASAAAAMMMAMAMAM MMAAA AAAA AAAAM MAAA AAASS তাহার আরও মান গুরুতর অপরাধের বিষয় বিচার-ক্ষেত্রে প্রমাণিত হইল। রাজকৰ্ম্মচারিগণের অনেকেই উ হার বিরুদ্ধ পক্ষ অবলম্বন করিয়াছিলেন। সুতরাং তাহার বিরুদ্ধের কোনও অভিযোগেই অপ্রমাণিত রহিল না। ত্ৰিলোচনের বিরুদ্ধে সৰ্ব্বাপেক্ষা গুরুতর অভিযোগ দাড়াইল —রাজা জয়সিংহের সহিত ষড়যন্ত্র । রাজ জয়সিংহের নিকট উৎকোচ গ্রহণ করিয়া তিনি জয়সিংহকে নবদ্বীপ-রাজ্যের গুপ্ত-সমাচার প্রদান করিয়াছিলেন ;–বিচার-ক্ষেত্রে তদ্বিষয় সপ্রমাণ হইল । ত্রিলোচন আত্মরক্ষার পক্ষে কোনই চেষ্টা করিলেন না। সকল কথার উত্তরেই তিনি বলিতে লাগিলেন,-“ট{কা— টাক-টাকা! যত ধূলা, তত টাকা! যহাপুরুষ অগণিত টাক ক’রে দিয়েছিলেন। রাজ-কৰ্ম্মচারীরা সব ঘুটে নিয়েছে।” এ ভিন্ন ত্ৰিলোচন আর কোনও কথাই কহিলেন না। ত্ৰিলোচনের আত্মীয়-স্বজন দুই এক জন তাহার পক্ষে তদ্বির করিবার চেষ্টা পাইলেন বটে ; কিন্তু সে তদ্বিরে কোনই ফল হইল না। বিচারপতি ত্রিলোচনের প্রাণদণ্ডের আদেশ দিলেন । 聯 ত্রিলোচন দণ্ডাদেশ অবিচলিত-ভাবে শ্রবণ করিলেন । দণ্ডাদেশ প্রদান করিয়াও বিচারক ত্রিলে সনকে জিজ্ঞাস। করিলেন,—“তোমার কিছুই বলিবার নাই কি ? যদি কিছু বলিবার থাকে, এখনও বলিতে পার।" ত্ৰিলোচন ভাগীরথীর দিকে মুখ ফিরাইয়া উত্তর দিলেন,— "ঐ মহাপুরুষ ! ঐ তিনি গঙ্গার জলে ঝাপ দিলেন।” এই