পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উদ্যোগে । とふ) 會刻 SAMAMAMAMAMSMSMSMAMeAAA AAAASS SSAAAS AMMMMSAMAeAMAeA AA JJSJAJAAAS বীরসিংহকে মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন বড়ই স্নেহ করিতেন । বীরসিংহকে মিথিলায় প্রেরণে প্রথমে তাহার একটু অমত হইয়াছিল । কিন্তু সেনাপতি সংগ্ৰামসিংহের একাস্ত আগ্রহবশেই তিনি বীরসিংহকে মিথিলায় প্রেরণ করেন। এখন, জয়সিংহের ব্যবহারের বিষয় অবগত হইয়া, মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন বড়ই ব্যথিত হইলেন । সেনাপতি সংগ্রামসিংহের অঙ্কুশোচনার অবধি রহিল না । রাজা জয়সিংহ যেরূপ দুৰ্ব্ব্যবহার করিলেন, তাহাতে তাহার বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা ভিন্ন উপায়ান্তর নাই । আবার তাহার বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা করিমেও বীরসিংহ-প্রমুখ বন্দিগণের প্রাণনাশের সন্ত বন । জয়সিংহ প্রতিজ্ঞা করিয়াছেন, — "মিথিলীর সীমানায় নবদ্বীপাধিপতির সৈন্য পদার্পণ করিব মাত্র তিনি বন্দীদিগের সংহার-সাধন করিবেন।’ মিথিলা-প্রত্যাগত অনুচর, জয়সিংহের প্রতিজ্ঞার কথা ঘেরূপভাবে বিবৃত করিল,— তাহাতে দুই দিক রক্ষার আশা কোনক্রমেই সম্ভবপর নহে । মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন ও সেনাপতি সংগ্রাম-সিংহ উভয়েই চিন্তাকুলিত চিত্ত ; উভয়েই অনেকক্ষণ কিংকৰ্ত্তব্যবিমূঢ় হইয়। রহিলেন । পরিশেষে সেনাপতি সংগ্রামসিংহ কহিলেন,— "মহারাজ ! বুথ ভাধিয়। কোনও ফল নাই । যাহা ঘটিবার ঘটবে। আপনি আদেশ করুন, আমরা মিথিলা-আক্রমণে প্রস্তুত হই ।” মহারাজ লক্ষ্মণ-সেন দীর্ঘনিশ্বাস ত্যাগ করিলেন। সেনাপতির কথার প্রত্যুত্তরে গম্ভীরভাবে কহিলেন;–“বিষম সমস্যার বিষয়!" ংগ্রাম-সিংহ –“মহারাজ ! সমস্যার বিযয় কিছুই নাই । নবদ্বীপাধিপতির মান-সন্ত্রম অপেক্ষ বীরসিংহের জীবন মূল্যবান