পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৮৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


br8 লক্ষণ-সেন । জয়সিংহ।—“তুমি পুনঃপুনঃ ব্রাহ্মণ-ব্রাহ্মণীৰ অতিসম্পাস্তেৱ কথা ৰল। কেন ? ব্রাহ্মণ-ব্রাহ্মণীর পুত্রকে আমি তো অগহরণ করিয়া আনি নাই ;–বন্দী করিয়াও রাখি নাই! তাদের পুত্র-আপন-আপনি বিবাগী হইয়া গিয়াছে। আমি তাহার জন্য কিসের অপরাধী ?” রাণী –“ব্ৰাহ্মণ-ব্রাহ্মণী পুত্রের অনুসন্ধানে কাশীধামে যাত্রা করিতেছিলেন। আপনি তাহাদিগকে আটক করিয়া রাখিয়। র্তাহাদের ব্যাকুলতা বাড়াইয়া তুলিয়াছেন। শুনিতে পাই, র্তাহার। সৰ্ব্বদাই শিরে করাঘাত করিয়া বলিতেছেন,—‘রাজা ! আমাদিগকে যেমন পুত্ৰশোকে ব্যথিত করিতেছ, তোমাকেও সেইরূপ শোক পাইতে হইবে।” মহারাজ ! যখনই সে কথা শুনি—যখনই ব্রাহ্মণ-ব্রাহ্মণীর সেই কাতরোক্তি কর্ণে প্রবেশ করে, তখনই প্রাণ কঁপিয়া উঠে।" জয়সিংহ। —“রাজনীতির কঠোর নিয়মে আমি আৰদ্ধ। কোনপ্রকারেই এখন তাহাদিগকে মুক্তি দিতে পারি না।" রাণী।–“তবে কি নির্দোষ ব্রাহ্মণ-ব্রাহ্মণীর অতিসম্পাতে সৰ্ব্বনাশ ঘটবে।" রাজা জয়সিংহ গম্ভীরভাবে উত্তর দিলেন,--"কি কৰিব – উপায় নাই! রাণি ! এ বিষয়ে তোমার কোনও অনুরোধ না করাই কৰ্ত্তব্য ছিল ।” এই বলিয়া রাজা জয়সিংহ চিন্তিত ও বিষঃ মনে প্রকোষ্ঠ পরিত্যাগ করিয়া চলিয়া গেলেন । বচসায় বিরক্ত হইয়া রাজা চলিয়া গেলেন ভাবিয়া, রাণীর মনে দারুণ অনুশোচন। উপস্থিত হইল ; নীরবে অশ্রু-বিসর্জন করিতে করিতে