প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/১৬৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ কুহুম ঘাড় ইেট করিয়া চুপ করিয়া রছিল। বৃন্দাবনের মা সাধারণ নিয়শ্রেণীর স্ত্রীলোকের মত ছিলেন না-ৰ্তা বুদ্ধি-শুদ্ধি ছিল ; কুস্কমের ভাব দেখিয়া হঠাৎ তাহার সন্দেহ হইল, কি যেন একটা গোলমাল ঘটিয়াছে। সন্দিগ্ধ-কণ্ঠে প্রশ্ন করিলেন, ই বোমা, কুরনাথ কি তোমাকে কিছু ল’লে যায়নি । কুসুম ঘোমটার ভিতর ঘড়ি নাড়িয়া জানাইল, না । কিন্তু ইহা তিনি বুঝিতে পারিলেন না, বরং মনে করিলেন, সে বলিয়াই গিয়াছে। তাই সস্তুষ্ট হইয়া বলিলেন, তবু ভালো,—তারপর কুরনাথকে উদ্বেগু করিয়া সস্নেহে বলিলেন, ভয় হয়েছিল,—আমার পাগলা ছেলেটা বুঝি সব ভুলে বসে আছে ! তবে বোধ করি, সে কিছু কিনতে-টিনতে গেছে, এক্ষুনি এসে পড়বে। ঐ যে—ওরাও সব হাজির । বৃন্দাবন কুঞ্জদা বলিয়া একটা ইকি দিয়া উঠানে আধিয়া দাড়াইল ; সঙ্গে তাহার আরও তিনটি ছেলে—ইহারাই মামাতো ভাই । তাহার মা বলিলেন, কুরনাথ এইমাত্র কোথায় গেল। বেীমা, ঘরের ভিতরে একটা সতরঞ্চি পেতে দাও বাছা-ওরা বক্ষক । কুসুম ব্যস্ত হইয় তাহার দাদার ঘরের মেঝেতে একটা কম্বল পাতিয়া দিয়া, কলিকাটা হাতে লইয়া তামাক আনিতে রান্নাঘরে চলিয়া গেল । বৃন্দাবন দেখিতে পাইয়া সহাস্যে কহিল, ও থাক। তামাক আমরা কেউ খাইনে । কুষম কলিকাটা ফেলিয়া দিয়া এইবার রান্নাঘরের একটা খুটি আশ্রয় করিয়া স্তন্ধ হইয়া দাড়াইল। তাহার কাওজানহীন মুখ অগ্রজ অকস্মাৎ একি বিপদের মাঝখানে তাহাকে ফেলিয়া দিয়া সরিয়া দাড়াইল ! ক্রোধে, অভিমানে, লজান্ন, অবগুস্তাবী অপমানের আশঙ্কায়, তাহার দুই চোখ জলে ভরিয়া গেল। কাল হইতেই তাহার ভাড়ারে সমস্ত জিনিস বাড়ন্ত হইয়া উঠিয়াছে । আজ সকালে স্বানে যাইবার পূৰ্ব্বেও সে ভাবিয়া গিয়াছে, ফিরিয়া আসিয়াই দাদাকে হাটে পাঠাইয়া দিবে, কিন্তু ফিরিয়া আসিয়া আর দাদার সন্ধান পায় নাই । দোষ অপরাধ করার পরে, ছোট বোনকে কুঞ্জ যথার্থই এত ভয় করিত যে, সচরাচর মানুষ দুষ্ট মনিবকেও এত করে না। যে বড়লোকদের ঘরে শুধু খাইয়া আসিবার অপরাধে কুঙ্কম এত রাগ করিয়াছিল, বোকের মাথায় সেই বড়লোকদিগকে সদলবলে নিমন্ত্ৰণ করিয়া ফেলার গুরুতর অপরাধ মুখ ফুটিয়া বলিবার দুঃসাহস কুঞ্জ কোনমতেই নিজের মধ্যে সংগ্ৰহ করিতে পারে নাই –পারে নাই বলিয়াই সে সকালে উঠিয়াই পলাইয়াছে, এবং কিছুতেই সে রাত্রির পূর্বে ফিরিবে না, ইহা নিশ্চয় ৰুকিয়াই কুক্কম আশঙ্কায় অস্থির 200