প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/১৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ হঠাৎ এ কি অভিযোগ ! বৃন্দাবন চুপ করিয়া দাড়াইয়া রহিল। কুহুম অধিকতর কঠোরভাবে বলিল, জান না, আমাদের কি ক’রে দিন চলে? কেন তবে তুমি দাদাকে অমন তামাসা করতে গেলে ? কেন এত লোক নিয়ে খেতে এলে ? - বৃন্দাবন প্রথমে ভাবিয়া পাইল না, এই নালিশের কি জবাব দিবে ; কিন্তু স্বভাবতঃ সে ধীর প্রকৃতির লোক । কিছুতেই লেশী বিচলিত হয় না। খানিকক্ষণ চুপ করিয়া নিজেকে সামলাটয়া লষ্টয়া, শেলে সহজ শাস্তভাবে জিজ্ঞাসা করিল, কুঙ্গা কোথায় ? কুৰুম বলিল, জানিনে। আমাকে কোনো কথা না বলেই তিনি সকালে উঠে চলে গেছেন । বৃন্দাবন আর একমুহূৰ্ত্ত মৌল থাকিয়া বলিল, গেলই বা । সে নেই, আমি আছি। ঘরে খেতে দেবার কিছু নেই না কি ? কিছু না ; সব ফুরিয়েচে, আমার হাতে টাকাও নাই । বৃন্দাবন কহিল, এ-গায়ে তোমাদের মত আমাকেও সবাই জানে। আমি মুদির হাতে সমস্ত কিনে পাঠিয়ে দিচ্চি। আমাকে একটা গামছা দাও,—আমি একেবারে স্বান করে ফিরে আসব। মা জিজ্ঞেস করলে ব'লো আমি নাইতে গেছি।—দাড়িয়ে থেকে না-যাও । কুমুম ঘরে গিয়া তাহার গামছা অনিয়া হাতে দিল। সেই মাথায় জড়াইয়া লইয়া বৃন্দাবন হাসিয়া বলিল, কুঞ্জদার তুমি বোন হও, তাই সে পালাতে পেরেছে ; আর কিছু হলে বোধ করি এমন করে ফেলে যেতে পারত না । কুহুম চুপি চুপি জবাব দিল, সবাই পারে না বটে, কিন্তু কেউ কেউ তাও বেশ পারে। বলিয়াই সে বৃন্দাবনের মুখের প্রতি আড়-চোখে চাহিয়া দেখিল, কথাটা তাহাকে বাস্তবিক কিরূপ আঘাত করিল। বৃন্দাবন যাইবার জন্য পা বাড়াইয়াছিল, থামিয়া দাড়াইয়া আস্তে আস্তে বলিল, তোমার এ ভুল হয়ত একদিন ভাঙতেও পারে। ছেলেবেলায় তোমার মায়ের অন্যায়ের জন্য যেমন তুমি দায়ী নও, আমার বাবার ভুলের জন্তেও তেমনই আমার দোষ নাই । যাক, এ-সব ঝগড়ার এখন সময় নয়, যাও—র"ধবার যোগাড় কর গে। রাধ বার কি যোগাড় করব শুনি ? আমার মাথাটা কেটে রেখে দিলে যদি তোমার পেট ভরে, না হয় বল, তাই দিই গে । বৃন্দাবন দু-এক পা গিয়াছিল, ফিরিয়া আসিয়া এ-কথার জবাব না দিয়া কণ্ঠস্বর আরও মত করিয়া ধীরে ধীরে বলিল, আমাকে যা ইচ্ছে তাই বলতে পার, আমাকে 'ృt"ు