প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/১৯৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*लुिङ भ*ीछे হুইত, যাহার এ-কাৰ্য্য নিত্য করিতে পায়, এ-সংসারে বুঝি তাহাজের আর কিছুই বাকী থাকে না । তাহার পর মনে পড়িয়া গেল, শেষদিনের কথা । যেদিন তিনি সমূদয় সংশ্রৰ ছিন্ন করিয়া দিয়া চলিয়া গেলেন । সেদিন সে নিজেও বাধা দেয় নাই, বরং ছিড়িতেই সাহায্য করিয়াছিল, কিন্তু তখন চরণের কথা ভাবে নাই । ঐ সঙ্গে সেও যে বিচ্ছিন্ন হইয়া দূরে সরিয়া যাইতে পারে, দারুণ অভিমানে তাই মনে পড়ে নাই। এখন যত দিন যাইতেছিল, ওই ভয়ই তাহার বুকের রক্ত পলে পলে শুকাইয়া আনিতেছিল, পাছে চরণ আর না আসিতে পায় । সত্যিই যদি সে না আসে, তবে একদওও সে বঁচিবে কি করিয়া ? আবার সবচেয়ে বড় দুঃখ এই যে, যে সন্দেহ তাহার মনের মধ্যে পূৰ্ব্বে ছিল, যাহা এ দুদিনে হয়ত তাহাকে বল দিতেও পারিত, আর তাহা নাই, একেবারে নিঃশেষে মুছিয়া গিয়াছে। তাহার আস্তরবাসী স্বপ্ত বিশ্বাস জাগিয়া উঠিয়া অহৰ্নিশি তাহার কানে কানে ঘোষণা করিতেছে, সমস্ত মিথ্যা ! তাহার ছেলেবেলার কলঙ্ক দুনাম কিছু সত্য নয় । সে হিছর মেয়ে, অতএব যাহা পাপ, বাহা অন্যায়, তাহা কোনমতেই তাহার হৃদয়ের মধ্যে প্রবেশ করিতে পারে না । জ্ঞানে হোক, অজ্ঞানে হোক, স্বামী ছাড়া আর কাহাকেও কখন হিস্থর ঘরের মেয়ে এত ভালবাসিতে পারে না। র্তাহাকে সেবা করিবার, তাহার কাজে লাগিবার জন্য সমস্ত দেহ মন উন্মত্ত হইয়া উঠে না । তিনি স্বামী না হইলে ভগবান নিশ্চয়ই তাহাকে স্বপথ দেখাইয়া দিতেন, অস্তরের কোথাও কোনো একটু ক্ষুদ্র কোণে এতটুকু লজ্জার বাষ্পও অবশিষ্ট রাখিতেন । আজ হাটবার । গোপালের মা বহুক্ষণ হাটে গিয়েছে, এখনি আসিবে, এইজন্ত সদর দরজা খোলা ছিল ; হঠাৎ দ্বার ঠেলিয়া কুঞ্জনাথবাবু চাকর সঙ্গে করিয়া বিলাতি জুতার মচ মচ, শব্দ করিয়া পাড়ার লোকের বিস্ময় ও ঈর্ষ উৎপাদন করিয়া বাড়ি চুকিলেন। কুঙ্কম টের পাইল, কিন্তু অশ্রুকলুষিত রাঙা চোখ লজ্জায় তুলিতে পারিল না । কুঞ্জনাথ সোজা ভগিনীর স্বমুখে আসিয়া কহিল, তোর বৃন্দাবন যে আবার বিয়ে কচ্চে রে ! কুসুমের বক্ষঃস্পন্দন খামিয়া গেল, সে কাঠের মত নতমুখে বসিয়া রহিল। কুঞ্চ গল। চড়াইয়া কহিল, কুমীরের সঙ্গে বাদ করে কি করে জলে বাস করে, আমাকে ভাই একবার দেখতে হবে । ঐ নন্দা বেষ্টম, কত বড় বেষ্টিমের বেট বোষ্টম, আমি তাই দেখতে চাই, আমার জমিদারীতে বাস করে আমারই অপমান! কুষম কোন কথাই বুঝিতে পারিল না, অনেক কষ্টে জিজ্ঞাসা করিল, নন্দ বোষ্টম কে ? Abro