প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/৩৯৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


चeथकांविड ब्रछबांबली बmणभैौब्र श्रद्दछ थांब्र थांभांरक्ब्र मन खब्रट्व न, ठा एरण जवांपछे ८ष डांद्दशद्ध छूर्दिबैौख् हरब, ७ यांभेि भान कब्रिटन । डांब्रां यन्नांबारण बण८ष्ठ नां८ब्र, गएझ छिंखांचखिन्द्र इणि वांकरणहे ठां श्रृंब्रिज्राजा इब ना, कि९वां विलक भब्र cणषांब्र जरछ cणथद्दकद्र क्लेिखांचखि বিসর্জন দেবারও প্রয়োজন নেই। কবি মহাভারত ও রামায়ণের উল্লেখ করে জীষ্ম ও রামের চরিত্র আলোচনা করে দেখিয়েচেন, ‘বুলি’র খাতিরে ও-ছুটে চরিত্রই মাটি হয়ে গেছে। এ নিয়ে আমি আলোচনা করব না, কারণ ও-দু’টো গ্রন্থ শুধু কাব্যগ্রন্থই নয়, ধৰ্ম্মপুস্তক ত বটেই, হয়ত বা ইতিহাসও বটে। ও-দুটি চরিত্র কেবলমাত্র সাধারণ উপস্তাসের বানান চরিত্র নাও হতে পারে, সুতরাং সাধারণ কাব্য-উপস্তাসের গজকাঠি নিয়ে মাপতে cषरड श्रांभांब्र बांग्लश । চিঠিটার ইন্‌টালেক্ট শব্দটার বহু প্রয়োগ আছে। মনে হয় যেন কৰি বিস্তে ও বুদ্ধি উভয় অর্থেই শব্দটার ব্যবহার করেচেন। প্রয়েম শব্দটাও তেমনি । উপন্যালে অনেক রকমের প্ররেম থাকে, ব্যক্তিগত, নীতিগত, সামাজিক, সাংসারিক, জার থাকে গল্পের নিজস্ব প্রৱেম, সেটা প্লটের। এর গ্রন্থিই সবচেয়ে স্বর্তেম্ভ। কুমারসম্ভবের প্ররেম, উত্তরকাওে রামভজের প্রব্লেম, ডলস হাউসের নোয়ার প্ররেম, অৰৰ cषांशां८षां८अब्र कूबूब्र eरब्रभ ७कलांउँौब नञ्च । cषांशांtषांश बद्देषांना वथन 'बिछिबाब চলছিল এবং অধ্যায়ের পর অধ্যায় কুন্তু ষে হাঙ্গামা বাধিয়েছিল, আমি ত তেৰেই পেতুম না, ঐ দুৰ্দ্ধৰ্ব প্রবলপরাক্রান্ত মধুসূদনের সঙ্গে তার টাগ-অব-ওয়ারের শেষ হবে কি করে । কিন্তু কে জানত সমস্তা এত সহজ ছিল-লেভী ডাক্তার মীমাংসা করে দেবেন একমুহূর্ভে এসে। আমাদের জলধর দাদাও প্রয়েম দেখতে পারেন না, অত্যন্ত চষ্টা । তার একটা বইয়ে এমনি একটা লোক ভারি সমস্তার স্বষ্টি করেছিল, কিন্তু তার মীমাংসা হয়ে গেল অন্ত উপায়ে। ফোস করে একটা গোখরো সাপ বেরিয়ে তাকে কামড়ে দিলে। দাদাকে জিজ্ঞাসা করেছিলুম, এটা কি হল। তিনি উত্তর দিয়েছিলেন, কেন, সাপে কি কাউকে কামড়ায় না ? পরিশেষে আর একটা কথা বলবার অাছে। রবীন্দ্রনাথ লিখেচেন, “ইবসেনের নাটকগুলি ত একদিন কম আদর পায়নি, কিন্তু এখনি কি তার রং ফিকে হয়ে আসেনি, কিছুকাল পরে সে কি আর চোখে পড়ৰে " না পড়তে পারে, কিন্তু তত্ত্বও এটা অল্পমান, প্রমাণ নয়। পরে একদিন এমনও হতে পারে, ইবসেনের পুরানো অাদর আবার ফিরে আসবে। বর্তমান কালই সাহিত্যের চরম হাইকোর্ট নয় ।