প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


한 রাসমণি শুভদার মুখপানে কিছুক্ষণ চাহিয়া থাকিয়া বলিলেন, বড় লক্ষ। করে বোঁ । ললনা সেখানে দাড়াইয়াছিল, সে ঘটিটা তুলিয়া লইয়া বলিল, মা, আমি একবার * দেখে আসি । শুভদা রুদ্ধকণ্ঠে বলিল, কোথায় ? ললনা মৃদ্ধ হাসিয়া একবার পিসিমাতার মুখপানে চাহিয়া বলিল, এই ঘোষেদের দোকানে । তুই যাবি মা ! কেন, তাতে আর লঙ্গ কি ? আমি এখানকার মেয়ে ; ছেলুেবেলা থেকে আমাকে সবাই দেখচে, আমার আর লজ্জা কি ? স্কসময় অসময় কার ঘরে নেই মা ? ললন চলিয়া যায় দেখিয়া রাসমণি তাহার হস্ত হইতে খটটু টানিয়া লইয়া বলিলেন, তবে আমিই যাই । সেদিন বেলা তিনটার পরে সকলের আহার হইল। সকলে তৃপ্ত হইলে শুভদ ললনাকে একপার্থে টানিয়া লইয়া গিয়া বলিল, ললনা লুকিয়ে দুটাে সজনে শাক ছিড়ে আন না মা ? ললনা বিস্মিত হইয়া বলিল, এত বেলায় কি হবে বল ? আমার দরকার অাছে ? কি দরকার মা ? শুভদা অল্প হাসিয়া বলিল, তোর শুনে কি হবে ? কথার ভাবে ললনা যেন কতক বুঝিতে পারল, বলিল, হাড়িতে বুঝি ভাত নাই ? ভাত কেন থাকবে না ? তবে কেন ? গৃহস্থ-ঘর ; দুটো সিদ্ধ করে রাখতে দোষ কি ? ললনা কাতর হইয়া বলিল, সত্যি কথা বল না মা, কি হয়েছে ? কি আর হবে ? তোমার পায়ে পড়ি, আমাকে আর লুকিয়ে না, মা ৷ ললনা পায়ে হাত দিতে যাইতেছিল, জননী তাহ ধরিয়া ফেলিল। আরো একটু নিকটে আসিয়া তাহার কপালের উপর চুলগুলি কানের পাশে গুজিয়া দিতে দিতে প্রসন্ন মুখে বলিল, একজনের বেশি ভাত নেই ; তিনি যদি আসেন, তাই— তাই বুঝি তুমি শুধু সজনে পাতা চিবিয়ে থাকবে ? 参》