প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/১৫০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ । সতীশ অত্যন্ত তৃপ্তি বোধ করিল ; বৃদ্ধ বেহারীর এই আকস্মিক রুচি-পরিবর্তনের কোন হেতু খুজিয়া পাইল না। ডাকিল, বেহাৰী ? বেহারী অন্তরালে দাড়াইরা ছিল, স্বযুখে আসিয়া কংিল, আজ্ঞে ? সতীশ কহিল, বেশ বেশ । যদি পারিস এ-সব, তবে কেন ঘর-দোর এত নোংরা করে রাখিল ভারী খুশী হলুম। - বেহারী সবিনয়ে মুখখানা ঈষৎ অবনত করিয়া বলিল, আজ্ঞে আপনার একখানা তারের চিঠি এসেচে। কইরে ? বলিয়া ইতস্ততঃ দৃষ্টি-নিক্ষেপ করিতেই টেবিলের উপর রক্ষিত হলদে খামখানা চোখে পড়িল। খুলিয়া দেখিল উপীনার সংবাদ । তিনি সাড়ে নয়টার ট্রেনে হাওড়া স্টেশনে পৌছিবেন। ঘড়িতে প্রায় সাড়ে আটটা বাজিয়াছিল, ব্যস্ত হইয়া কহিল, শীগগির একখানা গাড়ি নিয়ে আয় বেহারী, উপীনদা আসচেন । পাচ মিনিটের মধ্যে বেহারী গাড়ি ডাকিয়া জানিয়া সংবাদ দিল এবং কপাটের জাড়ালে দাড়াইয়া জিজ্ঞাসা করিল, বাবুকে নিয়ে বাসায় ফিরবেন ত ? সতীশ চিন্তা করিয়া কহিল, না, আজ রাতে আর ফিরব না । উপীনদ যে সোজা হারানবাবুর ওখানেই উপস্থিত হইবেন, সতীশের তাহাতে সংশয়মাত্র ছিল না। কারণ, তাহার সন্ত্রীক আসিবার খবর টেলিগ্রামে ছিল না। সতীশ ইত্যবসরে খান-দুই লুচি গিলিয়া লইতেছিল, বেহারী আড়াল হইতে কহিল, বাৰু, একটা নিবেদন আছে। প্রার্থনা জানাইতে হইলে বেহারী পণ্ডিতী ভাষা প্রয়োগ করিত। সতীশ মুখ তুলিয়া জিজ্ঞাসা করিল, কি নিবেদন ? ‘জাঞ্জে, বলিয়া বেহাৰী চুপ করিল। সতীশ প্রশ্ন করিল, কি আজ্ঞে শুনি ? বেহারী ইতস্ততঃ করিয়া বলিল, আজ্ঞে, গোটা-তিরিশ টাকা হলে— সতীশ বিস্থিত হইয়া কহিল, পরশু৪ ত তিরিশ টাকা নিলি ; বাড়ি পাঠিয়েছিলি f বেহাৰী মৃদ্ধশ্বরে কছিল, আজ্ঞে অভিপ্রায় তাই ছিল বটে, কিন্তু চক্রবর্তীঠাকুরেরবাড়িতে— - চক্রবর্তীর নামে সতীশ জলিয়া উঠিয়া কহিল, সে টাকা চক্রবর্তীকে দেওয়া হয়েচে– এ টাকাটা কাকে দান করা হবে শুনি ? श्रारख, मांन मञ्च, ७कछन बफ़ छःcथं नरप्लকৰ্ব চাইচে । আছে, ৰূর্ব আর তাকে কি দেব JBe