প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/২০১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৭ দাসীকে বিদায় দিয়া কিরণময়ী স্বস্থানে ফিরিয়া আসিয়া যখন বসিল, উপেন্দ্র স্বাড় তুলিয়া একবার চাহিতে পর্য্যন্ত পারিল না। কিরণময়ীর তাহা দৃষ্ট এড়াইল না, কিন্তু সেও কোন কথা না কহিয়া নীরবে কাজ করিয়া যাইতে লাগিল । মিনিট-শেক এইভাবে যখন গেল, তখন কিরণময়ী ধীরে ধীরে কহিল, আচ্ছা ঠাকুরপো, আড়াল থেকে কেউ যদি আমাদের এই রকম চুপ-চাপ বসে থাকতে দেখে কি মনে করে বল দেখি ? বলিয়। সে মুখ টিপিয়া হাসিল ! এ হাসি উপেন্দ্র চোখে না দেখিলেও অস্তরে অনুভব করিপ | কহিল, হয়ত ভাল মনে করে না । - তবে ? কি করব বৌঠান, কোন কথাই যেন খুজে পাচ্চিনে । কিরণময়ী সহাস্তে কহিল, পাচ্চ না? আচ্ছা, আমি খুজে বাস্ত্র করে দিচ্ছি। কিন্তু মাঝখানে একটা খবর দিয়ে রাখি যে, আমার খাবার তৈরী থেকে তোমাকে খাইয়ে বিদায় করা পৰ্য্যন্ত আধ ঘণ্টার বেশী লাগবে না। এই সময়টুকুর জন্তে তুমি একটুখানি প্রসন্নমুখে কথা কও, অমন মনভারি করে বসে থেকে না ! - উপেন্দ্র জোর করিয়া হাসিয়া কহিল, বেশ বলুন। , , কিরণময়ী আবার মুখ টিপিয়া হাসিল। কহিল, তবু ভাল, বৌঠানের মান রেখে একটু হেসেচ। তোমাকে দেখে পৰ্য্যন্ত একটা কথা আমার প্রায় মনে হয় ঠাকুরপো, কিন্তু শুনে আবার উন্টে বুঝে রাগ করে বসবে না ত? - না, রাগ কিসের ? কি জানো ঠাকুরপো, ভাল ভাল কাব্যে পড়া যায় ত, তা আমাদের দেশের বল, আয় বিদেশেরই বল, প্রথম চোখের দেখাতেই একটা প্রগাঢ় ভালবাসা—আচ্ছা, এ কি সম্ভব বলে মনে কর ? - উপেন্দ্রর সমস্ত মুখ চক্ষের পলকে লজ্জায় রাঙা হইয়া উঠিল। কহিল, ভাঙ্গ-মঙ্গ কোন কাব্য সম্বন্ধেই আমার বিশেষ কোন জ্ঞান নেই বৌঠাকরুশ, এ-সব আমি জানিলে ।” কিরণময়ী বলিল, সে কি কথা ঠাকুরপো ? এত লেখাপড়া শিখেচ, এতগুলো পাশ করে কত টাকার জলপানি আদায় করেচ, আর কাব্য সম্বন্ধে কিছুই জান না? শকুন্তলা, রোমিও-জুলিয়েট এ ছটোও কি তোমাকে পড়তে হয়নি? - - SBBBD DDDS DDD BB BB DBB C CDDS DG BD DBB BBS xi'; •