প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/২২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छब्रिङ्गशैंन ग:बांथनौ कश्नि, cययनांcश्व बा बाहे शहै, डबू चांननांब नप्त्र ७कहे जांउ उ । তার হাতে খেলে কি কারো জাত যাৰে ? প্রশ্ন শুনিয়া সতীশ হাসিল। কহিল, জাত বাৰে কি না বলতে পারিনে, কিন্তু মেমসাহেবের হাতের রান্ন। গলা দিয়ে যাবে কি না সেইটেই আসল কথা । ইস। তাই বই কি ! মেমসাহেবের হাতের রান্না খেলে তিনি ভূলতে পারবেন না, বলিয়া সরোজিনী হাসি ও এসেন্সের গন্ধে সমস্ত স্থানটা যেন তরঙ্গিত করিয়া ত্বরিৎপদে উঠিয়া ঘরের মধ্যে চলিয়া গেল। মিনিট পাচ-ছয় পরে যখন সে বাহির হইয়া আসিল, তখন তাহার পানে চাহিয়া সতীশ ক্ষণকালের জন্য মুঞ্জ इहेब्रां ब्रश्लि । জুতা-মোজার পরিবর্তে পা-দুখানি খালি, রেশমের জাম-কাপড়ের বদলে শুদ্ধমাত্র শেমিজের উপর সতীশের একখানি সাদাসিজে লালপেড়ে ধুতি পরা। দেখিয়া সতীশের দ্বচক্ষু জুড়াইয়া গেল। সে উচ্ছ্বসিত আবেগে বলিয়া ফেলিল, কি চমৎকার আপনাকে মানিয়েচে ! যেন লক্ষ্মীঠাকরুণটি ! - কথা শুনিয়া সরোজিনীর শিরার মধ্যে আনন্মের বান ডাকিয় গেল। কিন্তু দারুণ লঙ্কায় মাথা হেঁট করিয়া কহিল, যান-ঠাট্টা করলে রাধব না বলে দিচ্ছি। তখন উপোস করতে হবে । কিন্তু এই লজ্জার প্রকাশটাকে সে তৎক্ষণাৎ দমন করিয়া ফেলিল । কারণ সে জানিত, লজ্জাকে প্রশ্ৰয় দিলে তাহা উৎকট হুইয়া উঠে। তাই মাথা তুলিয়া সহাস্তে কহিল, স্বখ্যাতি পরে হবে। এখন রান্নাঘরটা কোন পাড়ায়, দেখিয়ে দিতে বলে দিন । বলিয়া নিজেই অগ্রসর হইয়া গেল। रैॐ - রাধা এবং খাওয়া শেষ হইয়া গেল, বারাক্ষায় স্থখানা চেয়ারে দুজনে মুখোমূখী বসিয়া ছিল । সরোজিনী কহিল, একটা কথা আমাদের কারো মনে হ’লো না যে, দাদার বাড়ির ঠিকানা ঠাকুর যদি না পায় ত নিজেই একটা গাড়ি ডেকে আনবে। কিন্তু, তা না হলে কি হবে সতীশবাবু ? - - - - - সতীশ কহিল, কখাটা মনে হলেও বিশেষ কোন কাজ হতে না । এত রাত্রে, এত দূরে কোন গাড়ি-ওয়ালাই বোধ করি আগতে চাইত না। হয় আপনাকে ህልእ »