প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/২৮৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চরিত্রহীন স্বামীর অধঃপতনের সমস্ত বিবরণ শুনিতে পাইলেন, কিন্তু বাধা দিবার লেশমাত্র চেষ্টা করিলেন না। যে স্বামী তাহাকে আত্মীয়-স্বজনের বাহিরে টানিয়া ফেলিয়া দিয়া গেলেন, তাহার উপর জগৎতারিণীর অভিমানের অবধি রহিল না। এমনি করিয়া দীর্ঘ পাঁচ বৎসর হইয়া গেল। জ্যোতিষ ফিরিয়া জাসিয়া মাকে আনিতে গেল, কিন্তু মা অটল হইয়া রছিলেন, গৃহে ফিরিলেন না । কাদিয়া কহিলেন, সব ত শুনেচিস জ্যোতিষ, এখন যাতে তোরা মুখে থাকিস, তাই কর গে বাবা, কিন্তু আমাকে সে-নরকের মাঝে আর টানিস্নে---ও আমি সইতে পারব না। জ্যোতিষ কহিল, আমরা আলাদা বাসা করে থাকব মা তোমাকে সে বাড়ির ছায়াও মাড়াতে হবে না। আমি উপার্জন করব, তাতেই আমাদের কোনমতে দুঃখে কষ্ট্রে চলে যাবে, তুমি এসে । অনেক কষ্ট্রে জগৎতারিণী সম্মত হইলেন এবং পুত্রকে কলিকাতায় আলাদা বাসা ঠিক করিতে বলিখা দিয়া যাত্রার উদ্যোগ করিতে লাগিলেন । জ্যোতিষ এক সপ্তাহের মধ্যেই ফিরিয়া আসিয়া লইয়। যাইবে বলিয়া মায়ের কাছে বিদায় লইয়া চলিয়া গেল । কিন্তু অত বিলম্বের আবখ্যক হইল না। পাচ দিন পরেই সে ফিরিয়া আসিল, কিন্তু তাহার খালি পা, খালি গায়ে এক খান। শাল জড়ানো দেখিয়াই জগৎতারিণী চীৎকার করিয়া কাদিয়া উঠিলেন। জ্যোতিষ যেদিন কলিকাতায় ফিরিয়া গিয়াছিল, তাহাৰ তৃতীয় রাত্রেই অকস্মাৎ হৃদরোগে পরেশনাথের মৃত্যু হইয়াছিল। নিদারুণ অভিমানে একদিন জগৎতারিণী বাড়ি ছাড়িয়া চলিয়া গিয়াছিলেন, হুদীর্ঘ পাঁচ বৎসর পরে আবার একদিন কাদিতে কাদিতে সে ৰাড়িতেই ফিরিয়া আসিলেন, কিন্তু স্বামীর সঙ্গে ইহলোকে আর দেখা হইল না। মেয়েকে স্কুল ছাড়াইয়া বাড়ি আনিলেন এবং তাহার আগাগোড়া পুনঃ পুনঃ নিরীক্ষণ করিয়া ভয়ে বিস্ময়ে স্তব্ধ হইয়া রহিলেন। জ্যোতিষকে আড়ালে ভাকিয়া জানিয়া কহিলেন, বোনের বিয়ে দিবি কবে বল দেখি ? জ্যোতিব মায়ের মনের ভাব বুঝিয়া হাসিয়া কহিল, ওর চেয়েও অনেক বড় বয়সের মেয়েদের বিয়ে হচ্চে মা, তুমি নির্ভাবনায় থাকে। জগৎতারিণী বিশ্বয়ে চোখ তুলিয়া বলিলেন, নির্ভাবনায় থাকব কি রে! তোর বাপ যা করে গেছেন সে ত ফিয়বে না জানি, কিন্তু আমি বেঁচে থাকতে ত বামুনের মেয়েকে মোসলমান খ্ৰীষ্টানদের হাতে দিতে পারব না, তাতে মেয়ের বিয়ে হোক আর নাই হোক । তোর জন্তে ভাবিনে, একটা প্রায়শ্চিত্ত করলেই হতে পারবে—সে বিধান আমি কাকার কাছ থেকে জেনেই এসেছি, কিন্তু হাজার প্রায়শ্চিত্ত করেও ত মেয়ের বয়স কমাতে পারা যাবে না ? তার উপায় হবে কি ? ३१७ به عدسی-Sa :