প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/৩৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छग्निबशेन এককড়ি কহিল, বাৰু? জাজ ৰাইশ দিন হ’লো, তিনি ত ভাল হয়ে গেছেন । মশায়, সমস্ত ওষুধ আমিই দিয়েচি ৷ বলিয়। সে বার-কয়েক নিজের বুক নিজেই %किम्रो शि । উপেন্দ্র অনেকটা নিশ্চিন্ত হইয়া প্রশ্ন করিলেন, আমুখটা কি খুব বেশী হয়েছিল, এককড়িবাৰু? এককড়ি কহিল, বেশী ? তিনি ত ময়েই গেছলেন। গিল্পীমা না এলে পড়লে ত শিবের অসাধ্যি ছিল । হবে না মশাই ? দিনরাত থাকোবাবার সঙ্গে মদ আর মদ, গাজ আর গাজা । কি না কালী-সিদ্ধ হচ্চে ! ছাই হচ্চে। ও-সব কি আমরা ডাক্তারেরা বিশ্বাস করি মশাই ? আমরা সায়েন্টিফিক্ মেন। কিন্তু গিল্পীমা এসেই থাকোবাবার বাবাত্বি বের করে দিলেন–টান মেরে ত্রিশূল ফ্রিশূল ফেলে দিয়ে দূত্র করে দিলেন। ব্যাট দিন-কতক কি কম কাণ্ডই করলে ! সেই যেন বাৰু,—একে তেড়ে মারতে যায়, ওকে তেড়ে মারতে যায়—একদিন, সামান্ত কথায় মশাই, আমাকে এমনি দাত-ঝাড়া দিয়ে উঠল ! আমি নেহাৎ নাকি ভালমাস্থ্য, কারো সঙ্গে ঝগড়া-বিবাদ করতে চাইনে, নইলে, আর কেউ হলে দিত ব্যাটার মাথার্ট সেদিন ফাটিয়ে। বলিয়া এককড়ি হাতের ছাতাটা শূন্তে আম্ফালন করিয়া লইল । উপেন্দ্র একটু আশ্চর্ঘ্য হইয়াই জিজ্ঞাসা করিলেন, গিনীমা কে ? - এককড়ি কহিল, তা কি জানি মশাই। সবাই বলে গিনীমা, আমিও বলি গিল্পীমা । উপেন্দ্ৰ কহিলেন, তাকে তুমি দেখেচ ? এককড়ি কহিল, ই সে এক-রকম দেখাই বই কি ? উপেন্দ্র জিজ্ঞাসা করিলেন, তার বয়স কত বলতে পায় ? এককড়ি একটু ভাবিয়া কহিল, তা চল্লিশ-পঞ্চাশ হবে বোধ হয়। নইলে বাবুকে কি কেউ শাসন করতে পারে মশাই ? ডাক্তারবাবু ত বলেন, তিনি না এলে ত হয়েই গেছল । - - - এককড়ি সঙ্গে উপেন্দ্র যখন সতীশের বাটীতে আলিয়া পৌঁছিলেন তখন ৰেল ডোবে-ডোবে। সরোজিন পূর্বেই পৌঁছিয়াছিল, তাহার পালকি ফটকের বাহিরে বটগাছতলায় নামাইয়া দরওয়ান অপেক্ষা করিতেছে। স্বমুখেই দাতব্য-চিকিৎসালয়, সেখানে লোকজনের অসন্তব জনতা । * - এককড়ি সকলকে সঙ্গে করিয়া জানিয়া নীচের বসিবার ঘরে বলাইয়া বেহারীকে ডাকিতে গেল, কিন্তু তাহার দেখা মিলিল না। ডাক্তারবাবুও বাহিরে রোগী দেখিতে গিয়াছিলেন, সমস্ত লোক ভিড় করিয়া তাহার জন্ত অপেক্ষা করিতেছে । * - 96