প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/৩৭০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ জার তিনি কোন প্রশ্ন করিলেন না, এবং পরক্ষণেই অজায় আচ্ছন্ন হইয়াপড়িলেন । এইভাৰে বাকী রাটুিকুর অবসান হইল। বেলা দশটার পর আবার একবার চোখ মেলিয়া ঠাহর করিয়া দেখিয়া হঠাৎ যেন চিনিতে পারিয়া ক্ষীণকণ্ঠে বলিয়া উঠিলেন, ও কে, সরোজিনী ? সরোজিনী মেজের উপর হাটু গাড়িয়া শষ্যার উপর মুখ লুকাইয়া কাদিয়া উঠিল। উপেজ জান্তে আস্তে ডান হাতটি তুলিয়া তাহার মাথার উপর রাখিয়া বলিলেন, এসেছ দিদি । তোমাকেই আমি মনে মনে খুজছিলাম, কিন্তু কিছুতেই স্বরণ করতে পারছিলাম না—আজি না এলে হয়ত আর দেখাই হ’তো না, বলিয়া আবার কিছুক্ষণ ধরিয়া কি যেন চিন্তা করিতে লাগিলেন। স্পষ্টই বুঝা গেল, আজ আর সব কৰা স্বরণ করিবার তাহার শক্তি নাই। হঠাৎ যেন মনে পড়ায় ডাকিলেন, সতীশ কই রে ? ওধারের জানালা ধরিয়া সতীশ বাহিরের দিকে চাহিয়া চুপ করিয়া দাড়াইয়া ছিল, কাছে আসিয়া দাড়াইতেই উপেন্দ্র বলিলেন, তোদের বিয়েট। আমার চোখে দেখে যাবার সময় হ’লে না সতীশ, কিন্তু এই লক্ষ্মী বোনটিকে আমার তুই কোনদিন ছঃখ সিনে। তোর হাতটা একবার দে ত রে, বলিয়া নিজের কঙ্কালসার হাতখানি উপরের দিকে তুলিলেন। সাবিত্রীর আনত মুখের পানে চাহিয়া মুহুর্তের জন্ত সতীশের বৃকের ভিতরটায় ধৰ্ব্ব করিয়া উঠিল, কিন্তু পরক্ষণেই সে হাত বাড়াইৱা উপেন্দ্রর কম্পিত হাতখানি নিজের বলিষ্ঠ দক্ষিণ হাতের মধ্যে ধরিয়া ফেলিল । উপেন্দ্ৰ মনে মনে জগৎতারিণীর কথা স্মরণ করিয়া বলিলেন, সতীশ, তুই সরোজিনীর মাকে ত জানিস। তার কাছে আমি জোর করে কথা দিয়েছিলুম ষে, আমার সতীশ ভাইটিকে তোমাকেই দেব। দেখিস রে, মরণের পরে কেউ যেন না বলতে পারে আমার কথা তুই রাধিস্নি । সতীশ চোখের জল আর সামলাইতে পারিল না, কাদিয়া কছিলেন, না উপীনা, এ-কথা কেউ বলবে না তোমার কথা আমি অবজ্ঞা করেচি, কিন্তু তবু ত গোপন করা চলে না—আমার সকল কথাই ত খুলে বলা দরকার। আমি ভাল নই, বহু দোষ, বহু অপরাধে অপরাধী—তবু কেমন করে সরোজিনী আমাকে গ্রহণ করবেন। বরঞ্চ জামাকে তুমি এ অধিকার দিয়ে যাও যেন কারও ভয়ে, কোন লোভে, কোন ছীলতায় তাকে না অস্বীকার করি, ৰে আমাকে ভালবাসতে শিখিয়েছে ; বলিয়া সে সাবিত্রীর মূখের প্রতি মূৰ তুলিতেই দু'জনের চারি চক্ষের দেখা হইয়া গেল। কিন্তু उषनरे उछाद्र नृष्टि चांनउ कब्रिन । छेzनटा हांजिण्णन, दणिरणब, वांजe कि cन-कषां त्रांबांब्र जांनएड बांकौ चां८ह সতীশ । আমি সব জানি। সমস্ত জেনেই তোজের আমি এক করে দিয়ে গেলুম। "GG e