প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


क्रांजिशैन। সাবিত্ৰী বলিল, আচ্ছ, আপনি ঘুমোন। সতীশ চোখের নিমিষে উঠিয়া বসিয়া বলিল, কি, ঘুমোব ? কথখন না। পুনৰ্ব্বার সাবিত্রী ধমক দিয়া উঠিল, জাপার! সতীশ গুইয়া পড়িল । ক্ষণকাল চুপ করিয়া থাকিয়া বলিল, কিন্তু তোমার ধার— সাবিত্রী "আচ্ছা বলিয়া উঠিয়া গেল এবং আলো কাছে আনিয়া ক্ষত পরীক্ষা করিয়া ধুইয়া দিয়া জিজ্ঞাসা করিল, কোথায় পড়ে গেলেন ? সতীশ মাথা নাড়িয়া বলিল, না, পড়িনি । সাবিত্রী সজল-কণ্ঠে বলিল, আর যদি কোনদিন মদ খান, আপনার পায়ে মাথা খুড়ে মরব। সতীশ তৎক্ষণাৎ বলিল, কোনদিন খাব না । আমাকে ছয়ে দিব্যি করুন, বলিয়া সাবিত্রী তাহার দক্ষিণ হস্ত বাড়াইয়া দিল । সতীশ নিজের দুই হাতের মধ্যে তাহার জলসিক্ত শীতল হাতখানি টানিয়া লইয়া বলিল, দিব্যি কচ্চি। * সাবিত্রী হাত টানিয়া লইয়া বলিল, মনে থাকবে ? না থাকলে তুমি মনে করে দিয়ে । আচ্ছা, আমি আসচি, আপনি ঘুমেন, বলিয়া সাবিত্ৰী নিঃশব্দে সাবধানে কবাট বন্ধ করিয়া বাহিরে আসিয়া দাড়াইল। ঠিক স্বমুখেই শুকতার রূপ, দপ, করিয়া জলিতেছিল, সেইদিকে চাহিয়া সাবিত্রী দুই হাত জোড় করিয়া কাদিয়া বলিল, ঠাকুর ! তুমি সাক্ষী থেকে। রাত্রের অন্ধকার তখন স্বচ্ছ হইয়া আসিতেছিল এবং তাহাই ভেদ করিয়া পথে গরুর গাড়ির শব্দ এবং ও-পাড়ার ময়দার কলের বঁাশী শোনা যাইতে লাগিল। সাবিত্রী দ্রুতপদে নীচে নামিয়া গিয়া রান্নাঘরের একটা কোণে র্যাপার মুড়ি দিয়া গুইয়া পড়িল এবং পরক্ষণেই নিদ্রা-কাতর দুই চক্ষু তাহার ঘুমে মৃত্রিত হইয়া গেল । বেলা দশটার পর কোনমতে স্নানাহিক সারিয়া লইয়া দিবাকর রান্নাঘরের স্বমুখে দাড়াইয়া খাতির করিয়া ডাক দিল, ঠাকুরমশাই গো । তাড়াতাড়ি ভাত বাড়ে, বড় বেলা হয়ে গেছে ।

  • ांप्रीहे छॉफ़ांद्र । ठांशंग्र गंलांब्र ऋण यांबांछ दफ़रबांन ऋश्वबौ वांश्रिद्र