প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/৩৯৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিভিন্ন রচনাৰঙ্গী चिञ्च । इक्षिणांभ सङ्गरषद । अहेबांब्र बांकैकँांश कङ्गन, बब्र शिन, cषन काळांब्र जॉषमाप्त । দ্বারা আপনার শিষ্য হইবার যোগ্য হইতে পারি। संक्र । डषांखु ।* ভাৰুভীষ্ম-ডচ-সঙ্গীত বিগত আষাঢ় মাসের তারতবর্ষে ঐযুক্ত দিলীপকুমার, রায়-লিখিত সঙ্গীতের সংস্কার’ শীর্ষক একটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়। ইহার একটি প্রতিবাদমূলক প্রবন্ধ ঐক্ত প্রমথনাথ বন্ধ্যোপাধ্যায় মহাশয় ভারতবর্ষে ছাপিবার জন্য পাঠান। কিন্তু লেখক ৰি কারণে জানেন না, তাহার দুর্ভাগ্যক্রমে উক্ত প্রতিবাদ-প্রবন্ধ ফেরত আসায় “বাধ্য: হয়ে গরম গরম প্রবন্ধটি একেবারে জুড়িয়ে যাবার আগে তাকে 'বঙ্গবাণী'র উদার অঙ্কে গুপ্ত করেছেন । প্রবন্ধটি ‘বঙ্গবাণী’র মাঘের সংখ্যার প্রকাশিত হয়েছে। শ্ৰীযুক্ত প্রমণবাৰু তাহার প্রবন্ধের একস্থানে লিখিয়াছেন,—“আমি সেই প্রত্নতত্ত্ববিংকে বেশী তারিফ করি যে একখানি তাম্রশাসন খুঁড়ে বের করেচে ও পড়েচে–ৰিভ সে কবিকেও তারিফ করি না যে নতুনের গান না গেয়ে কেবল নতুন কিছু করো’র গান গেয়েছে।” প্রবন্ধটি কেন যে ফেরত আসিয়াছে বুঝা কঠিন নয়। খুব সম্ভব । ভারতবর্ষের বুড়া সম্পাদক দিলীপকুমারের প্রবন্ধের প্রতিবাদে তাহার স্বর্গগত বন্ধু দিলীপের পিতার প্রতি এই অহেতুক কটাক্ষ হজম করিতে পারেন নাই। এবং সেই কবি নূতন গান না গেয়ে “শুধু কেবল “নতুন কিছু করো’র গানই গেয়েছেন”— প্রমণবাবুর এই উক্তিটিকে অসত্য জ্ঞান করে তাহার প্রেরিত এই উচ্চাদের প্রবন্ধটিকে । ত্যাগ করে থাকেন ত তাহাকে দোষ দেওয়া যায় না। সে যা হউক, না ছাপিবার কি কারণ তা তিনিই জানেন, কিন্তু দিলীপকুমারের বিরুদ্ধে অধিকাংশ বিষয়েই প্রমণবাবুর সহিত আমি ষে একমত তাহাতে লেশমাত্র সঙ্গেহ নাই। এমন কি বোল আনা বলিলেও অত্যুক্তি হইবে না। প্রমণবাৰু হিন্দুস্থানী সঙ্গীত লইয়া চুল পাকাইয়াছেন, তথাপি দিলীপের বক্তব্যের অর্থ গ্রহণ করা শক্তিতে র্তাহার কুলার নাই। প্রমথবাৰু বলিতেছেন, তিনি কথার কারৰারী

  • যমুন ( ১১শ সংখ্যা, ফাঙন, এম বর্ষ, ১৩২৭ বঙ্গাব্দ) পত্রিকায় প্রকাশিত।

అy: