প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/৪২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গ্রন্থ-পরিচয় সেই জগুই চরিত্রহীন পাঠাই । যদিও এই পাঠানো লইয়া অনেক কথা হইয়া গিয়াছে এবং হুইবে তাহা জানিয়াও আমি পাঠাইয়াছি। যা হোক তোমাদের যেমন ওটা পছন্দ হয় নাই তখন আমাকে ফেরৎ পাঠাইয়ো । বিজ্ঞাপন যেমন দেওয়া হইয়াছে সেই মত "যমুনা’তেই ছাপা হইবে । তুমি বলিয়াছ একেবারে পুস্তকাকারে ছাপাইলে ভাল হয়। সত্য, কিন্তু এতটা অগ্রসর হইয়া পড়িয়াছে, যদি নিজের স্বার্থের জন্য ফণীকে না দিই সে বড়ই দেখিতে মন্দ এবং লজ্জাকর হইবে।” হেমেন্দ্রকুমার রায় লিখেছেন : “...তখন দ্বিজেন্দ্রলালের সম্পাদকতায়ু মহাসমারোহে “ভারতবর্ষ” প্রকাশের উদ্যোগপৰ্ব্ব চলছে। দ্বিজেন্দ্রলাল শরৎচন্দ্রকে “ভারতবর্ষের” লেখকরূপে পাবার জন্য আগ্রহবান হন। দ্বিজেন্দ্রলালের পৃষ্ঠপোষকতায় তখন একটি সোঁখীন নাট্য সম্প্রদায় চলছিল এবং সেখানকার সভ্য স্বৰ্গীয় প্রমথনাথ ভট্টচার্ষ্য ছিলেন শরৎচন্দ্রের পরিচিত ব্যক্তি। তিনি শরৎচন্দ্রকে দ্বিজেন্দ্রলালের আগ্রহের কথা জানালেন এবং তার ফলে লাভ করলেন শরৎচন্দ্রের “চরিত্রহীন" উপন্যাসের প্রথম অংশের পাণ্ডুলিপি। সকলেই জানেন, চরিত্রহীন কোনকালেই রুচিবাগীশদের মানসিক খাদ্যে পরিণত হতে পারে না। রুচিবাগীশ বলতে যা বোঝায় দ্বিজেন্দ্রলাল তা ছিলেন না বটে, কিন্তু তার কিছু আগেই তিনি করেছিলেন “কাব্যে দুর্নীতির” বিরুদ্ধে বিষম যুদ্ধ ঘোষণা। কাজেই তার নূতন কাগজে তিনি “চরিত্রহীন” প্রকাশ করতে ভরসা পেলেন না। “চরিত্রহীন” বাতিল হয়ে ফিরে আসে এবং পরে "যমুনায়” বেরুতে আরম্ভ করে। এই প্রত্যাখ্যানের জন্যে শরৎচন্দ্ৰ মনে যে আঘাত পেয়েছিলেন, সেটা তখনকার অনেক সাহিত্যিক বন্ধুর কাছে প্রকাশ না ক’রে পারেন নি। কিন্তু সেজন্যে আত্মশক্তির উপরে তার নিজের ধারণা ক্ষুন্ন হয় নি কিছুমাত্র। "যমুনাতে" যখন “চরিত্রহীন” প্রকাশিত হতে থাকে তখনও একশ্রেণীর লোক তার বিরুদ্ধে তুমুল আন্দোলন উপস্থিত করে। কিন্তু শরৎচন্দ্র ছিলেন অটল ।” ২৪, ৫, ১৯১৩ প্রমথনাথকে লেখা চিঠিতে শরৎচন্দ্র বলেছেন : ***জার একটা কথা চরিত্রহীন সম্বন্ধে। আমার স্বরেন মামা লিখিয়াছেন— হরিদাসবাবুও তাহাকে জানাইয়াছেন ওটা এওই immoral যে কোন কাগজেই বাহির হইতে পারে না, বোধ হয় তাই হইবে—কারণ তোমরা আমার শত্রু নয়, যে মিথ্যা দোষারোপ করিবে । আমিও সেই কথা স্পষ্ট করিয়া এবং তোমার সমস্ত argument ফণীকে খুলিয়া লিখিয়াছিলাম, তৎসত্ত্বেও সে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ যে যমুনাতে ওটা বাহির করিতেই হইবে। তাহার বিশ্বাস আমি এমন কিছু লিখিতে পারি না যাহা immoral, সেই জন্ত বাধ্য হুইয়া তোমার অনুরোধ ভাই রক্ষা করিতে বোধ Øኔo