প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পথের দাবী পরায়ণ ও নিষ্ঠাবান হিন্দু। শিশুকাল হইতে যে সংস্কার তাহার হৃদয়ে বদ্ধমূল হইয়াছিল, উত্তরকালে তাহা স্বামী ও পুত্রদের হস্তে যতদূর আহত ও লাস্থিত হইবার হইয়াছে, কেবল এই অপূৰ্ব্বকে লইয়াই তিনি কোনমতে সহ করিয়া আজও গৃহে বাস করিতেছিলেন, সে ছেলেও আজ র্তাহার চোখের আড়ালে কোন অজানা দেশে চলিয়াছে। এ কথা স্মরণ করিয়া তাহার ভয় ও ভাবনার সীমা রহিল না ; শুধু মুখে বলিলেন, যে ক'ট দিন বেঁচে আছি অপু, তুই কিন্তু আর আমাকে দুঃখ দিসনে বাবা । এই বলিয়া তিনি আঁচল দিয়া চোখ দুটি মুছিয়া ফেলিলেন। অপূৰ্ব্বর নিজের চোখ সঙ্গল হইয়া উঠিল; সে প্রত্যুত্তরে কেবল কহিল, ম, আজ তুমি ইহালোকে আছ, কিন্তু একদিন স্বৰ্গ-বাসের ডাক এসে পৌছবে, সেদিন তোমার অপুকে ফেলে যেতে হবে জানি, কিন্তু, একটাদিনের জন্যেও যদি তোমাকে চিনতে পেরে থাকি মা, তা হলে সেখানে বসেও কখনো এ ছেলের জন্তে তোমাকে চোখের জল ফেলতে হবে না। এই বলিয়া সে দ্রুতবেগে অন্যত্র প্রস্থান করিল। সেদিন সন্ধ্যাকালে করুণাময়ী তাহার নিয়মিত আহ্নিক ও মালায় মনঃসংযোগ করিতে পারিলেন না, উদ্বেগ ও বেদনার ভারে তাহার দুই চক্ষু পুনঃ পুনঃ অশ্রআবিল হইয়া উঠিতে লাগিল, এবং কি করিলে যে কি হয় তাহা কোনমতেই ভাবিয়া না পাইয়া অবশেষে তাহার বড়ছেলের ঘরের দ্বারের কাছে আসিয়া নিঃশবে দাড়াইলেন । বিনোদকুমার কাছারি হইতে ফিরিয়৷ জলযোগাস্তুে এইবার সান্ধ্য পোষাকে ক্লাবের উদ্দেশ্যে যাত্রা করিতেছিলেন, হঠাৎ মাকে দেখিয়া একেবারে চমকিয় গেলেন। বস্তুতঃ এ ঘটনা এমনি অপ্রত্যাশিত যে সহস তাহার মুখে কথা যোগাইল না। করুণাময়ী কহিলেন, তোমাকে একটা কথা জিজ্ঞাসা করতে এসেচি বিষ্ণু । কি মা ? মা তাহার চোখের জল এখানে আসিবার পূৰ্ব্বে ভাল করিয়াই মুছিয়া আসিয়াছিলেন, কিন্তু তাহার আর্দ্রকণ্ঠ গোপন রহিল না । তিনি আন্থপূর্বক সমস্ত ঘটনা বর্ণনা করিয়া শেষে অপূৰ্ব্বর মাসিক বেতনের পরিমাণ উল্লেখ করিয়াও যখন নিরানন্দমুখে কহিলেন, তাই ভাবচি বাবা, এই ক’টা টাকার লোভে তাকে সেখানে পাঠাব কি না, তখন বিনোদের ধৈর্য্যচ্যুতি ঘটিল। সে রুক্ষ-স্বরে কহিল, মা, তোমার অপূৰ্ব্বর মত ছেলে ভূ-ভারতে আর দ্বিতীয় নেই সে আমরা সবাই মানি, কিন্তু পৃথিবীতে বাস করে এ-কথাটাও ত না মেনে নিতে পারিনে যে, প্রথমে চার-শ' এবং ছ'মাসে ছ’শ টাকা সে ছেলের চেয়েও অনেক বড় । - . মা ক্ষুণ্ণ হইয়া কছিলেন, কিন্তু, সে যে শুনেচি একবারে মেচ্ছ দেশ । ,