প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/১৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*८धब्र लांदी লক্ষ্য করিয়া নিজেও উত্তেজিত হইয়া উঠিল। তাহার রিস্টওয়াচের প্রতি বক্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করিয়া বলিল, আর পাচ মিনিট মাত্র সময় আছে, আপনি শেষ করুন । তলওয়ারকর কহিল, শুধু পাচ মিনিট ! তাৰ বেশী এক মুহূৰ্ত্তও নয়! তবুও এই অমূল্য ক'টি মিনিট আমি কিছুতেই ব্যর্থ হতে দেব না। ভাই বঞ্চিত্তের দল ! তোমাদের কাছে আমার মিনতি—আমাদের তোমরা অবিশ্বাস কোরো না । শিক্ষিত বলে, ভদ্র-বংশের বলে, কারখানায় দিন-মজুরি করিনি বলে আমাদের সংশয়ের দৃষ্টিতে দেখে নিজেদের সর্বনাশ তোমরা নিজেরাই করে না । তোমাদের ঘুম ভাঙাবার প্রথম শঙ্খধ্বনি সৰ্ব্বদেশে সৰ্ব্বকালে আমরাই করে এসেচি। আজ হয়ত না বুঝতেও পার, কিন্তু নিশ্চয়ই জেনে এই পথের দাদীর চেয়ে বড় বন্ধু এদেশে তোমাদের আর কেউ নেই । তাহার কণ্ঠ শুষ্ক ও কঠিন হইয়া আসিতেছিল, তথাপি প্রাণপণে চীংকার করিয়া কহিতে লাগিল, আমি বহুদিন তোমাদের মধ্যে কাজ করে এসেচি, আমাদের তোমরা চেনে না, কিন্তু আমি তোমাদের চিনি । যাদের তোমরা মনিব বলে জানো, একদিন আমি তাদেরই একজন ছিলাম । তার কিছুতেই তোমাদের মানুপ হ’তে দেবে না। কেবল পশুর মত করে রেখেই BBBBBB BBB BB BBBB BBS BB BBBB BYDS DD BBB BB BS —এই কথাটা তোমাদের আজ না বুঝলেই নয় । তোমরা অসাধু, তোমরা উচ্ছম্বল, তোমরা ইন্দ্রিয়াশক্ত—তাদের মুখ থেকে এই সকল অপবাদই তোমরা চিরদিন শুনে এসেচ । তাই, যখনই তোমরা দাবী জানিয়েচ, তখনই তোমাদের সকল দুঃখকষ্টের মূলে তোমাদের অসংযত চরিত্রকে দায়ী করে তারা তোমাদের সর্বপ্রকার উন্নতিকে নিবারিত করে এসেচে। কেবল এই মিথ্যেই তোমাদের তার অনুক্ষণ বুঝিয়ে এসেচে, ভাল না হলে কারও উন্নতিই কোনদিন হতে পারে না । কিন্তু, আজ আমি তোমাদের অসঙ্কোচে একস্ত অকপটে জানাতে চাই ঐ উক্তি তাদের কখনই সম্পূর্ণ সত্য নয়। তোমাদের চরিত্রই শুধু তোমাদের অবস্থার জন্য দায়ী নয় ; তোমাদের এই প্রবঞ্চিত হীন অবস্থাও তোমাদের চরিত্রের জন্য দায়ী। তাদের অসত্যকে আজ তোমাদের নির্ভয়ে প্রতিবাদ করতেই হবে। প্রবলকণ্ঠে তোমাদের ঘোষণা করতেই হবে কেবল টাকাই সবটুকু নয়। বলিতে বলিতে তাহার নীরস কণ্ঠ অত্যন্ত প্রখর হইয়া উঠিল, কহিল, বিনাশ্রমে সংসারে কিছুই উৎপন্ন হয় না—তাই, শ্রমিকও ঠিক তোমাদেরই মত মালিক-ঠিক তোমাদেরই মত সকল বস্তু, সকল কারখানার অধিকারী । এমনি সময়ে কে একজন পাঞ্জাবী ভদ্রলোক সৰ্দ্দার-গোরার কানে কানে কি একটা কথা, বলিতেই তাহার রক্ত-চক্ষু জলস্ত অঙ্গারের মত উগ্র হুইয়া উঠিল। সে গর্জন করিয়া বলিল, স্টপ ! এ চলবে না। এতে শাস্তি ভঙ্গ হবে। > & S