প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/১৬৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ ভারতী বলিল, আপনি কি তার স্ত্রীর কাছে এখন যাবেন না ? অপূর্ব তাহার মুখের দিকে চাহিয়া কহিল, যেতে হবে বই কি। কিন্তু সাহেবকেই বা কাল কি জবাব দেব ? তোমাকে কিন্তু বলে রাখচি ভারতী, সাহেব একটা কথা বললেই আমি চাকরি ছেড়ে দেব। দিয়ে কি করবেন ? বাড়ি চলে যাব । এদেশে মানুষ থাকে ? ভারতী বলিল, তার উদ্ধারেরও চেষ্টাও করবেন না ? অপূৰ্ব্ব থমকিয়া দাড়াইয়া কহিল, চল না একজন ভাল ব্যারিস্টারের কাছে যাই ভারতী। আমার প্রায় এক হাজার টাকা আছে,—এতে হবে না? আমার ঘড়িটড়িগুলো বিক্রী করলে হয়ত আরও পাঁচ-ছ’শ টাকা হবে । চল না যাই । ভারতী বলিল, কিন্তু তার স্ত্রীর কাছে যাওয়া যে সৰ্ব্বাগ্রে প্রয়োজন অপূৰ্ব্ববাবু। আমার সঙ্গে আর যাবেন না, এইখান থেকেই একটা গাড়ি নিয়ে স্টেশনে চলে যান, র্তার কি চাই, কি অভাব, অন্ততঃ একটা খবর দেওয়া যে বড় দরকার । অপূৰ্ব্ব ঘাড় নাড়িয়া সায় দিল ; কিন্তু তথাপি সঙ্গে সঙ্গেই চলিতে লাগিল। ভারতী বলিল, এটুকু আমি একাই যেতে পারব, আপনি ফিরুন। জবাব দিতে বোধ হয় অপূৰ্ব্বর বাধিতেছিল, কিন্তু ক্ষণেক মাত্র। তাহার পরেই কহিল, আমি একলা যেতে পারব না । ভারতী বলিল, বাসা থেকে তেওয়ারীকে না হয় সঙ্গে নেবেন। না, তুমি সঙ্গে চল । আমার যে জরুরি কাজ আছে । তা হোক, চল । কিন্তু কেন আমাকে এত করে জড়াচ্ছেন অপূৰ্ব্ববাৰু? অপূৰ্ব্ব চুপ করিয়া রহিল। ভারতী তার মুখের দিকে চাহিয়া একটুখানি হাসিল, কহিল, আচ্ছ। চলুন আমার সঙ্গে । নিজের কাজটুকু আগে সেরে নিই। পথের মধ্যে ভারতী সহসা একসময়ে কহিল, যে আপনাকে চাকরি করতে বিদেশে পাঠিয়েচে সে আপনাকে চেনে না। তিনি মা হলেও, না । তেওয়ারী দেশে যাচ্চে, আমি নিজে গিয়ে উদ্যোগ করে তার সঙ্গে আপনাকে ও বাড়ি পাঠিয়ে দেব। অপূৰ্ব্ব মৌন হুইয়া রহিল। ভারতী বলিল, কই, উত্তর দিলেন না যে বড় ? অপূৰ্ব্ব কহিল, উত্তর দেবার কিছু ত নেই। মা বেঁচে না থাকলে আমি সন্ন্যাসী হতুম | 3 to